চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মুক্তির দিনে হাউজফুল ‘ন ডরাই’, মুগ্ধ দর্শক

সেন্সর বোর্ডের আপত্তি ও মুক্তি নিয়ে জটিলতা তৈরী হওয়ার পরও শেষ পর্যন্ত ২৯ নভেম্বর দেশের ৮টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় তানিম রহমান অংশু পরিচালিত ‘ন ডরাই’। মুক্তির দিনেই ছবিটি দেখতে দর্শক হুমড়ি খেয়ে পড়েন রাজধানীর স্টার সিনেপ্লেক্সের তিনটি শাখাতেই। বাকি যে হলগুলোতে ছবিটি মুক্তি পেয়েছে, সেগুলোতেও বেশ ভাল দর্শক সাড়া।

এ বিষয়ে স্টার সিনেপ্লেক্সের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক মেসবাহ উদ্দিন আহমেদ চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, মুক্তির দিন সকাল থেকেই ছবিটি দেখতে হুমড়ি খেয়ে পড়েন দর্শক। প্রথম দিনে স্টার সিনেপ্লেক্সের তিনটি শাখাতেই বিকাল ও সন্ধ্যার শোগুলো পুরো হাউজফুল ছিলো।

বিজ্ঞাপন

বসুন্ধরা স্টার সিনেপ্লেক্স, সীমান্ত স্কয়ারের স্টার সিনেপ্লেক্স ও মহাখালি এসকে টাওয়ারে অবস্থিত সিনেপ্লেক্স-এ শুধু নয়, বাকি যে হলগুলো ছবিটি মুক্তি পেয়েছে সবগুলো থেকেই ইতিবাচক সাড়া পেয়েছেন বলে জানান মেসবাহ।

সেন্সর বোর্ডের আপত্তি থাকায় ২৯ নভেম্বর ‘ন ডরাই’-এর মুক্তি নিয়ে আশঙ্কা তৈরী হয়। আর এ কারণে প্রযোজক পরিবেশক সমিতিতে ছবিটি মুক্তির তারিখ নিতে আবেদনও করতে পারেনি এই ছবির প্রযোজক। এদিকে একই তারিখে ছবি মুক্তির অনুমতি নিয়ে নেয় ‘পাসওয়ার্ড’ ও ‘ইন্দুবালা’। যেহেতু উৎসব ছাড়া একই দিনে তিনটি ছবি একসঙ্গে মুক্তির নিয়ম নেই, তাই শেষ পর্যন্ত স্টার সিনেপ্লেক্সের তিনটি শাখা, যমুনা ব্লকবাস্টার, শ্যামলী সিনেমা, চট্টগ্রামের সিলভার স্ক্রিন, ময়মনসিংহের ‘ছায়বাণী’ ও বগুড়ার ‌‘মম ইন’-এ ছবিটি মুক্তি দেয়া হয় ‘ন ডরাই’।

মেসবাহ জানান আগামি সপ্তাহ থেকে দেশের অন্তত ৫০ থেকে ৬০টি প্রেক্ষাগৃহে ছবিটি মুক্তি দেয়া হবে। শিগগির দ্বিতীয় সপ্তাহের হল সংখ্যার তালিকা প্রকাশ করা হবে বলেও জানান তিনি।

রাজধানীর শ্যামলী প্রেক্ষাগৃহে দিনে চারটি শো চলছে ‘ন ডরাই’ ছবির। প্রথম দিনে ছবিটি কেমন চলছে, এমন প্রশ্নে শ্যামলী সিনেমা হলের হাউজ ম্যানেজার আহসান উল্লাহ চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, এখানে হাউজফুল না গেলেও ‘ন ডরাই’ দেখতে বেশ ভালো সংখ্যক দর্শকই পাচ্ছি।

তিনি মনে করেন, মুক্তির আগে আরো প্রচারণা হলে ভাল হতো। শুনেছি ছবিটার মুক্তি নিয়ে অনিশ্চয়তা ছিলো। বুধবারে হঠাৎ করে মুক্তির তারিখ ঘোষণা হলো। যে মানের ছবি, সেই মানের প্রচারণা হয়নি। যদি মুক্তির আগে প্রচারণার জন্য আরো সময় থাকতো, তাহলে এমন ছবি দেখতে দর্শক হুমড়ি খেয়ে পড়তো।

‘ন ডরাই’ নিয়ে দর্শকের অভিজ্ঞতার কথা জানিয়ে আহসান উল্লাহ আরো বলেন, ছবিটি দেখে দর্শকরা ‘নতুন ধারার ছবি’ বলছেন। এমন ছবি নিয়মিত হওয়া উচিত বলেও অনেককে মন্তব্য করতে শুনেছি। তবে ছবির ভাষা নিয়ে অনেকেই দুনোমনা করেছেন, আপত্তি জানিয়েছেন। এছাড়া সর্বোপরি দর্শক ছবিটি এনজয় করছেন। আমরা আশা করছি আগামি দিনগুলোতে এখানেও হাউজফুল হবে।

দেশের প্রথম নারী সার্ফার নাসিমার উঠে আসার বাস্তব গল্প নিয়ে সিনেমা ‘ন ডরাই’। সামাজিক, পারিবারিক প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে সার্ফিংয়ের আইকন হয়ে ওঠার অদম্য জীবনের গল্প আছে এই ছবিতে। ছবির অন্যতম দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন সুনেরা বিনতে কামাল ও শরিফুল রাজ।

Bellow Post-Green View