চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মিয়ানমারে সামরিক জান্তা বিরোধি বিক্ষোভে প্রথম মৃত্যু

মিয়ানমারের সেনা অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের সময় গুলিবিদ্ধ হওয়া এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। গুলি বিদ্ধ হওয়ার পর থেকেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় ছিলেন তিনি। 

মায়া থ্যা থ্যা খাইং নামের ২০ বছর বয়সী ওই নারীই মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে প্রাণ হারানো প্রথম বিক্ষোভকারী।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

গত ৯ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের রাজধানী নেপিডোতে বিক্ষোভের সময়ে তিনি আহত হন। এদিন বিক্ষোভকারীদের দমাতে রাবার বুলেট, জলকামান ও লাইভ রাউন্ড ব্যবহার করে ছত্রভঙ্গ করতে দেখা যায় পুলিশকে।

ওই দিনের পর থেকেই লাইফ সাপোর্টে ছিলেন তিনি। তার ভাই ইয়ে হতুত অং বলেন, আমার খুব কষ্ট হচ্ছে আর আমার কিছু বলার নেই।

বিজ্ঞাপন

ওই সময়ে নাম ছাড়াই মেডিক্যাল কর্মকর্তাদের বরাতে বিবিসি বার্মিজ জানিয়েছিলো, মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়েছিলেন তিনি।

সেনাবাহিনী ও বেসামরিক সরকারের মধ্যে নির্বাচনে জালিয়াতি নিয়ে বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে চলমান উত্তেজনার মধ্যেই ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থান ঘটে।

তার পরপরই এনএলডির শীর্ষ নেত্রী অং সান সু চি, দেশটির প্রেসিডেন্ট এবং মন্ত্রিসভার সদস্যসহ প্রভাবশালী রাজনীতিকদের আটক করে সেনাবাহিনী।

পরে সেনাবাহিনী এক ঘোষণায় জানায়, আগামী ১ বছরের জন্য মিয়ানমারের ক্ষমতায় থাকবে তারা।

গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকারকে সরিয়ে দিয়ে সেনা অভ্যুত্থানের ঘটনায় হাজার হাজার মানুষ বিক্ষোভ করতে রাস্তায় নেমে আসে।  বড় জনসমাগমে নিষেধাজ্ঞা ও রাত্রিকালীন কারফিউ থাকা সত্ত্বেও তারা বিক্ষোভ দেখায়।