চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মিয়ানমারে আবারও রক্তাক্ত দিন

মিয়ানমারের বাগো শহরে সেনাবাহিনীর গুলিতে ৮০ জনের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

সেখানকার সমাজকর্মীরা এসব তথ্য জানিয়েছেন।

নিহতদের মরদেহ সেনাবাহিনী সরিয়ে নিয়ে গেছে। তবে মৃতের সঠিক সংখ্যাটা জানা যায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা স্থানীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছে, সেনারা ভারী অস্ত্র ব্যবহার করেছে আর যেই নড়াচড়া করেছে তার উপরই গুলি চালিয়েছে।

পর্যবেক্ষক দল এএপিপি বলেছে, মৃতের সত্যিকারের সংখ্যা আরও বেশি হবে। 

মিয়ানমারের সেনাবিরোধী বিক্ষোভের আয়োজক ইয়ে এইচটাট বলেন, এটা তো গণহত্যা। তারা ছায়ার উপরও গুলি চালাচ্ছে।

সেনাবাহিনী ও বেসামরিক সরকারের মধ্যে নির্বাচনে জালিয়াতি নিয়ে চলমান উত্তেজনার মধ্যেই ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থান ঘটে।

তার পরপরই এনএলডির শীর্ষ নেত্রী অং সান সু চি, দেশটির প্রেসিডেন্ট এবং মন্ত্রিসভার সদস্যসহ প্রভাবশালী রাজনীতিকদের আটক করে সেনাবাহিনী।

পরে সেনাবাহিনী এক ঘোষণায় জানায়, আগামী ১ বছরের জন্য মিয়ানমারের ক্ষমতায় থাকবে তারা।

গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকারকে সরিয়ে দিয়ে সেনা অভ্যুত্থানের ঘটনায় হাজার হাজার মানুষ বিক্ষোভ করতে রাস্তায় নেমে আসে। বড় জনসমাগমে নিষেধাজ্ঞা ও রাত্রিকালীন কারফিউ থাকা সত্ত্বেও তারা বিক্ষোভ দেখায়।

এরই মধ্যে সেখানে প্রাণ হারিয়েছে ৬০০ জনেরও বেশি মানুষ।