চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মাশরাফী ম্যাজিকে চট্টগ্রামকে উড়িয়ে ফাইনালে খুলনা

প্রথম কোয়ালিফায়ারে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামকে ৪৭ রানে হারিয়ে বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপের ফাইনালে উঠেছে জেমকন খুলনা। অবশ্য ফাইনালে ওঠার আরেকটি পরীক্ষার সুযোগ পাবে চট্টগ্রাম। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টায় বেক্সিমকো ঢাকার বিপক্ষে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে খেলবে তারা।

সোমবার খুলনার ব্যাটসম্যানরা এনে দেন ২১০ রানের পুঁজি। কঠিন লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে ২ বল আগেই ১৬৩ রানে গুটিয়ে যায় চট্টগ্রাম। টি-টুয়েন্টি ক্যারিয়ারে প্রথমবার ৫ উইকেট নিয়েছেন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।

বিজ্ঞাপন

খুলনা-২১০/৭ (২০ ওভার), চট্টগ্রাম-১৬৩/১০ (১৯.৪ ওভার)

আগের ম্যাচে ফিফটি পাওয়া দুই ওপেনার সৌম্য সরকার ও লিটন দাসকে সাজঘরে পাঠান মাশরাফী। বড় রানতাড়ায় দুর্দান্ত কিছুর ইঙ্গিত দিয়েছিলেন লিটন। ইনিংস বড় করতে পারেননি। ১৩ বলে ২৪ রান করে মাশরাফীর বলে বোল্ড হন ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

তার আগে সৌম্যকে ফেরান মাশরাফী। প্রথম বলেই মিড উইকেটে ক্যাচ তুলে দেন বাঁহাতি ওপেনার (০)। মাহমুদুল হাসান জয়কে সঙ্গে নিয়ে লড়াই চালিয়ে যান অধিনায়ক মোহাম্মদ মিঠুন। তাদের জুটি ভাঙতেই নড়বড়ে হয়ে যায় চট্টগ্রাম।

বিজ্ঞাপন

মাহমুদুলকে (৩১) তৃতীয় শিকার বানিয়ে ৭৩ রানের জুটি ভাঙেন মাশরাফী। দারুণ এক স্লোয়ারে মিঠুনকে বোল্ড করেন আরিফুল হক। ৩৫ বলে তার ৫৩ রানের ইনিংসে ছিল তিনটি করে চার ও ছক্কা।

নিজের শেষ ওভারে শামসুর রহমান শুভ (১৮) ও মোস্তাফিজুর রহমানকে (০) ফিরিয়ে ৫ উইকেট পূর্ণ করেন মাশরাফী। ৪ ওভার বোলিং করে ডানহাতি পেসার দেন ৩৫ রান।

হাসান মাহমুদ ও আরিফুল নেন দুটি করে উইকেট। একটি উইকেট নিয়েছেন সাকিব আল হাসান।

শুরুতে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা খুলনা পায় দুর্দান্ত শুরু। ওপেনিং জুটি থেকে আসে ৭১ রান। জহুরুল ইসলাম অমি ৫১ বলে করে যান ৮০ রান।

পরে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ খেলেন ঝোড়ো ইনিংস। ৯ বলে করেন ৩০ রান। ইমরুল কায়েস ২৫, সাকিব ২৮ ও আরিফুল ১৫ রান করেন।

মোস্তাফিজ নেন দুই উইকেট। সঞ্জিত সাহা ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত নেন একটি করে উইকেট।