চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মধ্যরাতে আসছে শিহাব শাহীনের দ্বিতীয় সিনেমা

‘ছুঁয়ে দিলে মন’-এর পর শিহাব শাহীনের নতুন ছবি ‘যদি কিন্তু তবুও..’

২০১৫ সালের ১০ এপ্রিল। মহাসমারোহে সারা দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় শিহাব শাহীনের প্রথম সিনেমা ‘ছুঁয়ে দিলে মন’। বাংলা রোমান্টিক এই চলচ্চিত্রটি তরুণ প্রজন্মের দর্শকদের মধ্যে বেশ সাড়া ফেলে। প্রশংসার পাশাপাশি বাণিজ্যও করে সিনেমাটি।

এর ঠিক ছয় বছর পর নিজের দ্বিতীয় সিনেমা নিয়ে আসছেন নির্মাতা শিহাব শাহীন এবং ঠিক এপ্রিল মাসেই! নির্মাতা বলছেন, ৩১ মার্চ দিবাগত রাত ১২টা থেকে ১টার মধ্যে ভারতীয় স্ট্রিমিং প্লাটফর্ম জি-ফাইভে দেখা যাবে তার দ্বিতীয় সিনেমা ‘যদি কিন্তু তবুও…’।

সিনেমা মানেই বিরাট আয়োজন। আর সেটা বড় পর্দার জন্যই নির্মিত। যেখানে হুমড়ি খেয়ে দর্শক সিনেমাটি দেখতে যাবেন। নিজের প্রথম সিনেমাতেও এই বিষয়গুলো উপভোগ করেছেন শিহাব শাহীন। কিন্তু নিজের দ্বিতীয় সিনেমাটিই প্রেক্ষাগৃহে যাচ্ছে না। এতে কি নির্মাতা হিসেবে কোনো আক্ষেপ জমা আছে তার?

এমন প্রশ্নে ‘আগস্ট ১৪’ এর নির্মাতা জানান, ট্রাডিশনালি চিন্তা করলে সিনেমা তো বড় পর্দার জন্যই। কিন্তু এখনকার প্রাযুক্তিক পৃথিবীতে বাস্তবতা ভিন্ন। ওটিটিতে পৃথিবীব্যাপী সিনেমা মুক্তি দেয়া হচ্ছে, এটাই বাস্তবতা। আরো স্পষ্টভাবে বললে, করোনা পরবর্তী সময়ের বাস্তবতা ওটিটি। এটাকে মেনে নিতেই হবে। এখানে আক্ষেপ করলে চলবে না।

তিনি জানান, ওটিটিকে বরং আমরা স্বাগত জানাই। অনেক প্রতিভাবান নির্মাতারা নতুন নতুন ভাবনার গল্প দেখানোর সুযোগ পাবেন এই মাধ্যমে, যা হয়তো নরমালি আমাদের এখানে সম্ভব না। এই বাস্তবতাকে বরং আমরা সুযোগ হিসেবে গ্রহণ করতে চাই।

বিজ্ঞাপন

প্রথম সিনেমার মতোই ‘যদি কিন্তু তবুও…’ নিয়েও নির্মাতার প্রত্যাশার পারদ বেশ উপরে। জানালেন, টিজার, ট্রেলার রিলিজের পর ব্যাপক সাড়া পেয়েছেন। হয়তো আরো মানুষের কাছে পৌঁছানোর সুযোগ ছিলো, যদি মাঝখানে দুই-তিন দিনের জন্য বাংলাদেশে ফেসবুক ডাউন না থাকতো। তবে এখনও প্রচুর মানুষের আগ্রহ দেখতে পাচ্ছেন বলেও জানান তিনি।

পুরোপুরি বিনোদন দিতেই কাজটি করেছেন জানিয়ে শিহাব শাহীন বলেন, দর্শক কাজটি দেখে বিনোদন যেমন পাবে, সেইসঙ্গে একটি দারুণ মেসেজও পাবে।

‘যদি কিন্তু তবুও…’ চলচ্চিত্রটিকে বলা হচ্ছে ‘দ্য বিগেস্ট বাংলাদেশি ওয়েডিং অব দ্য ইয়ার’। এমন ট্যাগ লাইন কেন? উত্তরে এই নির্মাতা জানান, গল্পের কারণেই এমন ট্যাগ নিয়েছি। আয়োজনের দিক থেকে আমরা কোনো খামতি রাখিনি। যেন এটা বিগেস্ট বাংলাদেশি ওয়েডিং হিসেবে দর্শকের সামনে তুলে ধরতে পারি। আয়োজনের দিক থেকে, নাটকীয়তার দিক থেকে, গল্পের দিক থেকে, অভিনয়ের দিক থেকে- বিরহ কেন্দ্রিক বড় আয়োজনের ওয়েডিং ফিল্ম এটি।

২০২০ সালের শুরুর দিকে এ ছবির ঘোষণা দিয়েছিল জিফাইভ। গত বছরের মার্চ থেকে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে কয়েক দফায় শুটিং পিছিয়ে যায়। এরমধ্যে শুটিং সম্পন্ন করে অবশেষে মুক্তি পেতে যাচ্ছে ওয়েব ফিল্মটি।

ছবিতে প্রধান চরিত্রে অপূর্ব-ফারিয়া ছাড়াও এতে অভিনয় করেছেন তারিক আনাম খান, ইমতু রাতিশ, নাজিবা বাশার প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন