চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘বিক্ষোভ’ এ নেই, তবে অন্য ছবির গানে থাকছেন সানি

বাংলাদেশের একটি সিনেমার আইটেম গানে পারফর্ম করেছেন বলিউডের আবেদনময়ী অভিনেত্রী সানি লিওন। খবরটি বছর দুয়েক আগে ফলাও করে প্রচারও হয়।

জানানো হয়, শুধু গানটির শুটিং অ্যারেঞ্জমেন্টেই খরচ পড়ছে প্রায় কোটি টাকা! সানি লিওনের অংশ গ্রহণে মুম্বাইতে ঠিকঠাক ভাবেই শুটিং হয়েছে সেই গানটির। গত ১৩ সেপ্টেম্বর সেই সিনেমাটি পেয়েছে সেন্সর ছাড়পত্র ও! কিন্তু সিনেমায় নেই সেই গান!

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বলছি শাপলা মিডিয়া প্রযোজিত শামীম আহমেদ রনী পরিচালিত ‘বিক্ষোভ’ ছবির আলোচিত ও ব্যয়বহুল ‘সানি সানি’ গানটি নিয়ে! অনেকে গানটি নিয়ে প্রতীক্ষাতেও ছিলেন। তবে শেষ সময়ে এসে সিনেমায় কেন রাখা হলো না গানটি?

এমন প্রশ্নে চ্যানেল আই অনলাইনকে শাপলা মিডিয়ার কর্ণধার ও ‘বিক্ষোভ’ এর প্রযোজক সেলিম খান জানালেন, সানি লিওনের আইটেম গানটি ছাড়াই সেন্সর বোর্ডে ‘বিক্ষোভ’ ছবিটি জমা দেয়া হয়েছিলো। গত ১৩ সেপ্টেম্বর এই ছবিটি সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে। টেকনিক্যাল কারণেই আমরা সেন্সর বোর্ডে ছবিটি জমা দেয়ার সময় গানটি বাদ দিয়েছি।

সেলিম খান বলেন, বিদেশি অভিনেতাদের অভিনয়ের ক্ষেত্রে আমাদের সরকারি কিছু নিয়মনীতি মানতে হয়। বিদেশের অভিনেতাদের বাংলাদেশের সিনেমায় নিতে গেলে আগে থেকে সরকারের অনুমতি নিতে হয়। কিন্তু সানির ক্ষেত্রে তা নেওয়া হয়নি। সানির শিডিউল পেয়েছিলাম বিধায় দ্রুত শুটিং করি। সরকারি অনুমতি না থাকায় শেষ পর্যন্ত ‘বিক্ষোভ’ সেন্সর বোর্ডে জমা দেয়ার আগে গানটি বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিই।

বিজ্ঞাপন

সানি লিওনকে নিয়ে এত ব্যয়বহুল গানটির তাহলে কী হবে? জানতে চাইলে ‘বিক্ষোভ’ এর এই প্রযোজক বলেন, ‘কলকাতায় শাপলা মিডিয়া ইন্টারন্যাশনাল থেকে একাধিক সিনেমা হচ্ছে। প্রসেনজিৎ, দেব, বনি, অংকুশ, ঋতুপর্ণা, কৌশানির মতো শিল্পীরা সেখানে অভিনয় করছেন। ‘বিক্ষোভ’ এ যদি গানটি ফাইনালি ব্যবহার করা যায় তবে কলকাতার কোনো না কোনো সিনেমাতে সুযোগ বুঝে গানটি ব্যবহার করা হবে।’

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের দর্শকরা যেন গানটি উপভোগ করতে পারেন সময় এলে আমরা সেই চেষ্টাও করবো।

প্রিয় চট্টোপাধ্যায়ের কথায় আকাশ সেনের সুর ও সংগীতে সেই গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন কোনাল। গানটি নিয়ে আগেই এই শিল্পী জানিয়েছিলেন,‘বিগ অ্যারেঞ্জেমেন্টের গান। খুব যত্ন নিয়ে, সময় নিয়ে গানটি করেছি। সংগীত পরিচালকের নির্দেশনায় আমি আমার মতো করে গেয়েছি। স্ক্রিনে বাকিটা উপস্থাপন করবেন সানি লিওন।’

গানটিকে আইটেম সং বলার চেয়ে ‘সেলিব্রেশন সং’ বলতে চাইলেন কোনাল। তার মতে, এটি মূলত পার্টি গান, নাচানাচির গান। মানুষ গানটি শুনবে এবং নাচতে বাধ্য হবে। এককথায় এটি উদযাপনের গান। যে কোনো উৎসবে এ গানটির মাধ্যমে ভরপুর নাচানাচি করা যাবে!

সম্প্রতি সেন্সর ছাড়পত্র পাওয়া ‘বিক্ষোভ’ এ অভিনয় করেছেন কলকাতার জনপ্রিয় নায়িকা শ্রাবন্তী ও তরুণ চিত্রতারকা শান্ত।