চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বার্গারের বদলে ম্যাকডোনাল্ড দিলো সস!

ক্রেতা হয়তো চেয়েছিলেন তার বার্গারের স্বাদের কিছুটা ভিন্নতা আনতে। তাই অর্ডারের সময় শর্ত জুড়ে দিলেন, বার্গারে কোন ধরনের প্যাটি (মাংসের টিকিয়া), বন (পাউরুটি), মাস্টেড (সরিষার সস), পেঁয়াজ এবং আঁচার ব্যবহার করা যাবে না! ক্রেতার এমন চাহিদায় হয়তো চিন্তায় পড়ে যায় বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ ফুড চেন ‘ম্যাকডোনাল্ড’র কর্মকর্তা কর্মচারীরা। শেষ পর্যন্ত সমাধান হিসেবে অর্ডার করা ‘হ্যামবার্গার’র পরিবর্তে ক্রেতাকে দুই প্যাকেট ‘কেচআপ’ সস সরবরাহ করেছেন প্রতিষ্ঠানটি। 

ঘটনাটি কানাডায়, গত সপ্তাহের সোমবার পুল দম্পত্তির স্ত্রী কেটি পুল ম্যাকডোনাল্ডের কাছে হ্যামবার্গারের একটি চাহিদা অনলাইনের মাধ্যমে অর্ডার করেন।

বিজ্ঞাপন

পুরো পরিস্থিতি সোস্যাল মিডিয়া পোস্টে তুলে ধরেছেন কেটি স্বামী জোডি পল। তিনি তার পোস্টে বলেন: অর্ডার করা সময় কেটি পুল মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন। তিনি মাতাল হয়ে পড়েছিলেন, এ অবস্থায় বার্গার খেয়ে কিছুটা হ্যাংওভার কাটাতে চান কেটি। আর বার্গারে চাইছিলেন কিছুটা স্বাদের ভিন্নতা। তাই হ্যামবার্গারের উপাদানের কিছুটা যোজন-বিয়োজন করতে চাইলেন তিনি। কিন্তু বলতে বলতে বার্গার প্রস্তুতের সম্ভাব্য সব কটি উপাদান একে এক বাদ দেন কেটি। 

বিজ্ঞাপন

ম্যাকডোনাল্ড হ্যামবার্গারের এমন অর্ডার পেয়ে শুধুমাত্র দুই প্যাকেট কেচআপ সস তাদের বাসায় পাঠিয়ে দেয়। এসময় ম্যাকডোনাল্ডে কেটির করা অর্ডারের একটি চাহিদা পত্র প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে ওই দম্পত্তিকে সরবরাহ করা হয়।

সেটিই সোস্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন জোডি পল। যা অল্প সময়ের মধ্যে নেটিজেনদের নজরে আসে আর ভাইরাল হয়।

জোডি তার পোস্টে লেখেন: নো প্যাটি, নো বন, নো মাস্টেড, নো ওনিয়ন, নো পিকেলস……তারা সত্যি আমাদের দুই প্যাকেট কেচআপ সস পাঠিয়ে দিয়েছে!