চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বান্দরবানে পপি চাষী দুই ভাইকে পিটিয়ে হত্যা

বান্দরবানের রুমার রেমাক্রী প্রাংসা দুর্গম এলাকায় দুই ভাইকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে পাড়াবাসীর বিরুদ্ধে। দুই ভাই পপি চাষ করতেন। কয়েক মাস আগে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের পপি বাগান ধ্বংস করে দিয়েছিল। এ নিয়ে ওই এলাকার অনেকের সঙ্গে তাদের দ্বন্দ্ব ছিল বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

মঙ্গলবার রেমাক্রী প্রাংসার হ্লা‌চিং পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যন্ত অঞ্চলের এ ঘটনা জানাজানি হয় বুধবার রাত আনুমানিক ১১টার পর। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে স্থানীয় পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

পুলিশ আরও জানায়, বৃহস্পতিবার দুই ভাইয়ের লাশ সদরে নিয়ে আসা হবে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

‌নিহত দুই ভাই হচ্ছেন: থোয়াইবা অং মারমা (৪০) ও ক্যসুই থোয়াই মারমা (৩০)। তারা রুমা রেমাক্রী প্রাংসা ইউ‌নিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের হ্লা‌চিং পাড়ার থোয়াই হ্লা‌চিংয়ের ছেলে।

পু‌লিশ জানিয়েছে, এ বছরের ২৪ জানুয়ারি ওই এলাকায় চট্রগ্রাম র‍্যাব-৭-এর সদস‍্যরা অভিযান চালিয়ে নিহত এ দুই ভাইয়ের বেশকিছু পপি বাগান ধ্বংস করে। দুই ভাইয়ের ধারণা, পাড়া প্রধান ও পাড়ার বাসিন্দারাই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে তাদের নিষিদ্ধ পপি ক্ষেতের কথা জানিয়েছিল। র‌্যাবের অভিযানে পপি ক্ষেত ধ্বংস হওয়ার পর তারা এলাকাবাসীর ওপর নানা ধরনের অত্যাচার চালিয়েছেন, পাড়া প্রধান বা কারবারীকেও হুমকি-ধমকি দিয়েছেন। দুই ভাইয়ের ভয়ে কারবারীকে কিছুদিন পালিয়েও থাকতে হয়েছিল।

পুলিশ আরও জানায়, দুই ভাইয়ের অত্যাচারে পাড়াবাসী অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলো। এর মধ্যে মঙ্গলবার দুপুরে পাড়ার এক‌টি অনুষ্ঠা‌নে দুই ভাই তুচ্ছ এক ঘটনাকে কেন্দ্র করে একজন‌কে দা দিয়ে কুপিয়ে জখম করেন। এতে পাড়ার বাসিন্দারা ক্ষিপ্ত হয়ে দুই ভাইকে গণধোলাই দেয়। সেখানে তারা গুরুতর আহত হলেও বিনা চি‌কিৎসাতেই মারা যান।

বান্দরবানের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) মোহাম্মদ রেজা সরোয়ার জানিয়েছেন, বুধবার পুলিশ ঘটনাটি জানতে পারলেও এলাকাটি খুবই দুর্গম হওয়ায় নিহতদের লাশ এখনো রুমা সদরে আনা সম্ভব হয়নি। বৃহস্পতিবার দুই ভাইয়ের লাশ সদরে আনা সম্ভব হবে ব‌ললে জানান তি‌নি।