চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বাংলাদেশকে ‘সেকেন্ড হোম’ বললেন কুয়েতি রাষ্ট্রদূত

বাংলাদেশের উন্নয়নে সর্বাত্মক সহযোগিতা করতে প্রস্তুত কুয়েত এবং কোরিয়া। বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতকালে বাংলাদেশে নিযুক্ত দুই দেশের রাষ্ট্রদূতরা প্রধানমন্ত্রীকে এ কথা জানান।

সাক্ষাত শেষে সাংবাদিকদের এ বিষয়ে বিস্তারিত জানান প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম।

প্রথমে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাত করেন বাংলাদেশে নবনিযুক্ত রিপাবলিক অব কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত আন সিয়ং ডু (Ahn Seong-doo)। কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত তার দেশের রাষ্ট্রপতির পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান।

কোরিয়ান রাষ্ট্রদূত প্রধানমন্ত্রীকে বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নে সহযোগিতা করতে কোরিয়া সব সময় প্রস্তুত। মহেশখালীকে ডিজিটাল দ্বীপে পরিণত করতে কোরিয়া কাজ করছে বলে প্রধানমন্ত্রীকে জানান সিয়ং ডু।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করেন কোরিয়ান রাষ্ট্রদূত বলেন, আপনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ ২০২১ সালে উচ্চ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ উন্নয়নের নতুন মডেল হতে পারবে।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রধান লক্ষ্য বাংলাদেশের উন্নয়ন নিশ্চিত করা, অর্থনৈতিক অগ্রগতি ত্বরান্বিত করা। তথ্য-প্রযুক্তির উন্নয়নে সরকারের সফলতা তুলে ধরে বলেন, গ্রামের মানুষও এখন ইন্টারনেট ব্যবহার করছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ সফওয়ার ও হার্ডওয়ারসহ আইসিটি সর্ম্পকিত রপ্তানিতে জোর দিচ্ছে। তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি খাত হতে পারে পরবর্তী রপ্তানি লক্ষ্য।

Advertisement

ব্যাপক উন্নয়নে কোরিয়ার প্রশংসা করে তিনি বলেন, উন্নয়ন কর্মকান্ডে কোরিয়া কাছ থেকে বাংলাদেশের অনেক কিছু শেখার আছে।
কোরিয়ার কর্মরত ১৪ হাজার বাংলাদেশির প্রশংসা করে রাষ্ট্রদূত জানান তাদের স্বাস্থ্য ও আবাসন নিশ্চিত করা হয়েছে।

পরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাত করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত কুয়েতের রাষ্ট্রদূত আদেল মোহাম্মদ এ.এইচ হায়াত (Adel Mohammed A. H. Hayat)। প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে কুয়েতের আমির ও প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান।

কুয়েতের রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নে সর্বাত্মক সহযোগিতা অব্যহত রয়েছে। বাংলাদেশের অভূতপূর্ব উন্নয়নের প্রশংসা করে তিনি বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন দেখে আমি অভিভূত। বাংলাদেশকে তার ‘সেকেন্ড হোম’ হিসেবে উল্লেখ করেন রাষ্ট্রদূত।

উপসাগরীয় যুদ্ধের সময় বাংলাদেশের সহযোগিতার কথা স্মরণ করে আদেল মোহাম্মদ বলেন, কুয়েতের কঠিন সময়ে বাংলাদেশ সহযোগিতা করেছে।

প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে তিনি বলেন, আমরা আপনার নেতৃত্বের মূল্য দেই।

কুয়েতের সঙ্গে বাংলাদেশের সুসর্ম্পকের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রদূতকে বলেন, কুয়েত আমাদের হৃদয়ে বিশেষভাবে জায়গা করে নিয়েছে। বাংলাদেশের উন্নয়নে কুয়েতের প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী।

কুয়েতে বাংলাদেশী প্রবাসীদের প্রশংসা করে রাষ্ট্রদূত বলেন, তারা অনেক পরিশ্রমী। এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা কুয়েতে আরো দক্ষ শ্রমিক পাঠাতে চাই।