চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বহু প্রশ্ন সামনে রেখে মুক্তি পাচ্ছেন শ্রীশান্ত

অবশেষে সুখবর শান্তাকুমারন শ্রীশান্তের জন্য। তার শাস্তির মেয়াদ কমে সাত বছর হচ্ছে এবং তা উঠে যাচ্ছে ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের অম্বুডসম্যান এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যার অর্থ, চাইলে শ্রীশান্ত এরপর সবধরনের ক্রিকেটে ফিরতে পারেন। শ্রীশান্তের সঙ্গে শাস্তি পেয়েছিলেন অজিত চাণ্ডিলা এবং অঙ্কিত চৌহ্বানও।

২০১৩ সালে আইপিএলে স্পটফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে জড়ানোয় ক্রিকেট থেকে আজীবন নির্বাসিত হন শ্রীশান্ত। অভিযোগ ছিল, আইপিএলে রাজস্থান রয়্যালস এবং কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় ওভারে ১৪ রান দেয়ার বিনিময়ে ১০ লাখ রুপি পান। এই অভিযোগের স্বপক্ষে অনেক নথি পেশ করা হয়। যদিও তিনি নিজে আগাগোড়া অভিযোগ অস্বীকার করে এসেছেন।

বিজ্ঞাপন

ভারতীয় বোর্ডের কঠোর এই সিদ্ধান্ত নিয়ে একাধিকবার আদালতে আপিল করলেও এতদিন পর্যন্ত বিসিসিআই কোনোরকম নরম মনোভাব দেখায়নি। শেষপর্যন্ত বোর্ডেরই হস্তক্ষেপে উঠতে চলেছে শাস্তি। তার উপর থেকে আজীবন নির্বাসন উঠতে যাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

আজীবন নির্বাসন কমে শ্রীশান্তকে সাত বছরের নির্বাসনের শাস্তির ঘোষণা করেছে বিসিসিআই। বোর্ডের অম্বুডসম্যান ডি কে জৈন মঙ্গলবার এ শাস্তি কমার কথা জানান। জৈনের কথায়, ‘…শ্রীশান্ত, যিনি এখন তিরিশের শেষের দিকে, ক্রিকেটার হিসেবে তার সেরা সময় পার করে এসেছেন। বিশেষ করে এই সময় একজন ফাস্টবোলারের ক্রিকেটজীবন শেষ হয়ে যাওয়ার কথা। আমার মতে, শ্রীশান্তের শাস্তির মেয়াদ হচ্ছে ৭ বছর। যা শুরু হয়েছিল ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৩ সাল থেকে। শাস্তি শেষ হলে শ্রীশান্ত সবধরনের ক্রিকেটে ফিরতে পারবেন এবং বোর্ডের কোনো ক্রিকেটীয় ক্রিয়াকলাপেও অংশ নিতে পারবেন।’

সেক্ষেত্রে ২০২০ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত শাস্তির মেয়াদ থাকবে। এরপর চাইলে ক্রিকেটে ফিরতে পারবেন তিনি।

গত মার্চে শ্রীশান্তের উপর থেকে আজীবন নির্বাসনের নির্দেশ তুলে নিয়েছিল ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। দেশের সর্বোচ্চ আদালত ভারতের নির্বাসিত ফাস্ট বোলারের শাস্তির মেয়াদ বিসিসিআইকে নির্ধারণ করার নির্দেশ দিয়েছিল। কিন্তু এতদিন বোর্ডের কোনো অম্বুডসম্যান না-থাকায় সেই সিদ্ধান্ত নিতে পারছিল না বিসিসিআই।

বর্তমানে শ্রীশান্তের বয়স ৩৬। যখন শাস্তি উঠবে, অর্থাৎ, ২০২০ সালে ৩৭ ছুঁয়ে ফেলবেন। তখন তার বাইশ গজে ফেরা নিয়ে প্রশ্ন থাকছেই। এটা একপ্রকার নিশ্চিত, দেশের জার্সিতে ক্রিকেটে ফেরা প্রায় অসম্ভব। ৩৭ বছরের কোনো বোলারকে আইপিএলে কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি নিতে চাইবে কি না, তা নিয়েও প্রশ্ন। তাই ফিট থাকলে একমাত্র ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরতে পারেন শ্রীশান্ত।

Bellow Post-Green View