চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফেসবুক আইডি ও পেজ নিয়ে বিপাকে মাহি

ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডি ও ভেরিফায়েড পেজ নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। বৃহস্পতিবার (২৩ মে) ভোর রাত থেকে আইডি ও পেজের নিয়ন্ত্রণ হারান বলেন চ্যানেল আই অনলাইনকে জানিয়েছেন জনপ্রিয় এই নায়িকা।

আইডি ডিজেবল থাকলেও মাহির পেজটি শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত চালু ছিল। এমনকি সেখানে একটি ‘আপত্তিকর’ ভিডিও প্রকাশ করে হ্যাকার। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওই ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায়। তবে ভিডিও নিয়ে কিছুই জানেন না এই নায়িকা।

বিজ্ঞাপন

মাহিয়া মাহি বলেন, ব্যক্তিগত আইডি হ্যাকড করে ডিজেবল করে দিয়েছে। তবে পেজ গতকাল (শনিবার) পর্যন্ত একটিভ ছিল। সেটিও গতকাল সন্ধ্যার সময় বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, পেজে একটি ‘আপত্তিকর’ ভিডিও ছিল, সেটি ৯৯৯-এ যোগাযোগ করার পর পুলিশি সাহায্য নিয়ে সরানো হয়েছে।

মাহিয়া মাহির সঙ্গে আলাপ করে জানা যায়, ২০১৫ সাল জাজ মাল্টিমিডিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক ফাটলের পর পেজটি জাজ কর্তৃপক্ষে তাদের নিয়ন্ত্রণে রেখে দেয়। তখন পেজের অনুসারী ছিল ৭ লাখের বেশি। প্রায় ৪ বছর পেজটির নিয়ন্ত্রণ ছিল না মাহির কাছে।মাসখানেক আগে মাহি তার পেজটি নিজের দায়িত্বে রাখার পর ১০ লাখের বেশি অনুসারীসহ গত বৃহস্পতিবার আবার নিয়ন্ত্রণ হারান।

মাহিয়া মাহি বলেন, আমার প্রথম আইডি সামিরা আকতার নিপা মাহি গত বছর হ্যাকড হয়েছিল। এরপর দ্বিতীয় আইডি মাহিয়া মাহিও হ্যাকড হলো। কেন আমার সঙ্গে এমনটা হচ্ছে কিছুই বুঝতে পারছি না। আমার ভক্তরা অনেক সচেতন। কোনো আপত্তিকর ভিডিও বা ছবির মাধ্যমে তারা যেন বিভ্রান্ত না হয় ওই অনুরোধ রইলো।

এ প্রসঙ্গে ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ডিভিশনের অতিরিক্ত উপ কমিশনার মো. নাজমুল ইসলাম জানিয়েছেন, ‌মাহির ফেসবুক পেজ থেকে আপত্তিকর ভিডিওটি সরানো হয়েছে। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এ ধরনের ভিডিও আবারো কেউ প্রকাশ করতে চাইলে পারবে না। স্বয়ংক্রিয়ভাবে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তা বন্ধ করে দেবে।’

এই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, কে বা কারা ফেসবুক পেইজটি হ্যাক করেছিল তা আমরা কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চেয়েছি। জানা মাত্রই তাকে অ্যারেস্ট করতে সক্রিয় হব আমরা।

Bellow Post-Green View