চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফুটপাতে জমজমাট ঈদবাজার

দিন যতই যাচ্ছে ঈদকে সামনে রেখে জমজমাট হয়ে উঠছে ঈদবাজার। সাধ ও সাধ্যের মধ্যে ক্রেতারা ঈদের আনন্দ পরিবারের সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে নিজেদের মতো করে রাজধানীর বিভিন্ন মার্কেট ঘুরে ঈদ কেনাকাটায় ব্যস্ত সময় পার করছেন।

রোজার তৃতীয় শুক্রবার থাকায় ক্রেতারা ভিড় করছে বিভিন্ন মার্কেটে। উচ্চবিত্তরা গুলশান,উত্তরা বা বনানির বিভিন্ন শপিং বা ফ্যাশন হাউসগুলোতে তেমন করে মধ্যবিত্তরা নিউ মাকের্ট, চাঁদনী চক কিংবা বসুন্ধরা শপিং মলে। আর নিম্নবিত্তরা ভিড় করছেন গুলিস্তান, মহাখালী কিংবা ফার্মগেটের ফুটপাতের দোকানগুলিতে।

বিজ্ঞাপন

কথায় আছে যার যেমন আয় তার তেমনি ব্যয়। সেই আয়ের পরিপ্রেক্ষিতে পরিবারের সবার জন্য সাধ্যের মতো একটি দুটি পোশাক কিনছেন তারা। অনেকের পোশাক হয়তো পছন্দ হয়েছে, কিন্তু ইচ্ছা থাকলেও উপায় নেই দামে মিলছে না বলে।

বিজ্ঞাপন

ফার্মগেট এলাকার ফুটপাতের ঈদবাজার ঘুরে দেখা গেলো, ফুটপাতের বাহারি পোশাক কিনতে এদিক ওদিক ঘুরে শেষক্রমে একটি পোশাক কিনে এক টুকরো হাসি নিয়ে অবশেষে বাড়ি ফিরছেন অনেকে। রাজধানীর বড় বড় শপিংমল ও মাকের্টগুলোতে যেমন ঈদ উপলক্ষে কিরণমালা, জলনুপুর এর মতো ভিন্ন নামের পোশাকে সেজেছে। ঠিক একইভাবে ফুটপাতের দোকানগুলোতে বাহারি রঙ আর ভিন্ন কাজে এখানেও সেজে উঠেছে কিরণমালা,পাখির মতো আরও বহু নামের পোশাক।

মায়ের সঙ্গে ঈদের পোশাক কিনতে আসা শিশু মালা নিজের ভাষায় উচ্ছাস প্রকাশ করে বলেন, ‘আমার খুব আনন্দ লাগতাছে মা আমারে পাখি কিননা দিছে। ঈদের এইটা পইড়া আমি ঘুরুম’।

ফুটপাতের দোকানগুলোতে মেয়েদের ঈদের পোশাকের দাম ৩০০ টাকা শুরু করে ৮০০ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে। ছেলেদের টি শার্ট বিক্রি হচ্ছে ৩০০ টাকা থেকে ৫০০ টাকার মধ্যে। বাচ্চাদের প্যান্টের মূল্য সর্বোচ্চ ৪৫০ টাকা আর সর্বনিম্ন ৩৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া আরো বিক্রি হচ্ছে ছেলেদের পাঞ্জাবি মেদের থ্রি পিস, শাড়ীসহ আরো বাহারি জিনিস। বাহারি আয়োজনে দোকান সাজিয়ে বসা ফুটপাতের দোকানিরা বলছেন, ঈদ কেনাকাটা শুরু হয়েছে, রোজার শেষদিকে আরও বাড়বে বিক্রি।