চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফার্গুসন-হ্যাজেলউডের সঙ্গে চোটের মিছিলে আলিম দারও

অজিদের রান সাগরে হাবুডুবু কিউদের

পার্থ টেস্টের প্রথমদিনেই মাঠের বাইরে নিউজিল্যান্ড পেসার লোকি ফার্গুসন। সমতা ফেরাতে পরের দিন মাঠ ছাড়লেন অস্ট্রেলিয়ান পেসার জশ হ্যাজেলউডও। মাঠের দুই প্রতিপক্ষ যখন একজন করে খেলোয়াড় কম নিয়ে খেলছে, তখন আম্পায়ারইবা বাদ যাবেন কেন? মাঠের তিন পক্ষের মধ্যে সমতা ফিরিয়ে তােই চোটে পড়লেন রেকর্ড টেস্ট পরিচালনা করতে নামা আলিম দারও!

পার্থে নিজের রেকর্ড ১২৯তম টেস্ট পরিচালনা করতে ফুরফুরে মেজাজেই ছিলেন দার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের আম্পায়ার স্টিভ বাকনারের সবচেয়ে বেশি ১২৮ টেস্ট ম্যাচ পরিচালনার রেকর্ড ভেঙে হয়েছেন সর্বোচ্চ টেস্ট পরিচালনাকারী অনফিল্ড আম্পায়ার। রেকর্ডের ম্যাচে কিউই অলরাউন্ডার কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমকে ভুল সিদ্ধান্তে আউট দিলেও তা প্রায় ঢাকাই পড়ে যাচ্ছিল। কিন্তু আলিম দার আলোচনায় উঠে এলেন মিচেল স্যান্টনারের সঙ্গে সংঘর্ষে মাঠে পড়ে গিয়ে।

আম্পায়ারিং প্রান্তে দাঁড়িয়ে ছিলেন আলিম দার। নিজের বলে ফিল্ডিং করে ব্যাটসম্যানকে আউট করার জন্য বল ছুঁড়ে দিয়েছিলেন কিউই পেসার টিম সাউদি। এমন সময় সেই বল ধরার জন্য ফিল্ডিংপ্রান্ত থেকে দৌড়ে এসেছিলেন মিচেল স্যান্টনার। হঠাৎ আলিম দারের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় স্যান্টনারের, পায়ে স্যান্টনারের হাঁটুর ধাক্কা লেগে মাঠেই পড়ে যান পাকিস্তানি আম্পায়ার।

পায়ের আঘাতে বেশ কাবুই লাগছিল দারকে। তাই দৌড়ে আসেন ফিজিও। পায়ে ম্যাজিক-স্প্রে দিয়েও যখন ব্যথা কমছিল না, তখন বাধ্য হয়েছেন পায়ে নি-ক্যাপ পড়তে, অনেকটা খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে হলেও শেষ করেছেন তৃতীয়দিন নিজের দায়িত্ব।

বিজ্ঞাপন

আলিম দারের দায়িত্বশীলতাকে সাধুবাদই জানিয়েছে পার্থের দর্শকরা। তারা উঠে দাঁড়িয়ে জানিয়েছেন অভিনন্দন। এমনকি দিনের শুরুতে মার্নাস লাবুশেনের ছুঁড়ে দেয়া নিজের হ্যাট দারুণভাবে ক্যাচ ধরে দারও জুগিয়েছেন বিনোদন।

চোটবহুল দিবা-রাত্রির ম্যাচে বেশ কাহিল অবস্থা সফরকারী নিউজিল্যান্ডের। ৫ উইকেটে ১০৯ রান নিয়ে তৃতীয়দিন শুরু করা কিউরা তাদের প্রথম ইনিংসে অলআউট হয় ১৬৬ রানে, তাতে অজিদের লিড তখনই দাঁড়িয়ে যায় ঠিক ২৫০ রানের। ৫ উইকেট নিয়েছেন মিচেল স্টার্ক।

চাইলে ফলোঅন করানো যেত কিন্তু তা না করিয়ে নিজেরাই দ্বিতীয়বারের মতো ব্যাটিংয়ে নেমে যায় অস্ট্রেলিয়া। প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান মার্নাস লাবুশেনের ৫০ ও ওপেনার জো বার্নসের ৫৩ রানের কল্যাণে স্বাগতিকরা তৃতীয় দিন শেষ করেছে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৬৭ রান তুলে। কিউইদের জন্য এরইমধ্যে রানের বোঝা দাঁড়িয়ে গেছে ৪১৭ রানের!

শেয়ার করুন: