চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘ফাইনাল’ জিতে সিরিজ কোহলির ভারতের

ওপেনিংয়ে ব্যর্থ লোকেশ রাহুলকে ছেঁটে ফেলে কোহলি নিজেই উঠে এলেন উদ্বোধনীতে, রোহিতকে সঙ্গী করে তুললেন ঝড়, ভারত পেল দুইশ পেরোনো সংগ্রহ। যাতে ভর করে শেষ টি-টুয়েন্টিতে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সিরিজ উঁচিয়ে ধরলেন কোহলি।

নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে অলিখিত ‘ফাইনাল’ হয়ে পড়া পঞ্চম টি-টুয়েন্টিতে ইংলিশদের বিপক্ষে ৩৬ রানে জিতেছে ভারত। সঙ্গে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ঘরে রেখেছে ৩-২এ।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

আহমেদাবাদে শুরুতে ব্যাট করে নির্ধারিত ওভারে ২ উইকেটে ২২৪ রানের রেকর্ড সংগ্রহ গড়ে ভারত। জবাব দিতে নেমে নির্ধারিত ওভারে ৮ উইকেটে ১৮৮ পর্যন্ত যেতে পেরেছে ইংল্যান্ড।

টি-টুয়েন্টিতে নিজেদের চতুর্থ সর্বোচ্চ ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সর্বোচ্চ রানের সংগ্রহ গড়ার দিনে ওপেনিংয়ে ৫৪ বলে ৯৪ রানের জুটি গড়েন বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মা।

রোহিত ৪ চার ও ৫ ছক্কায় ৩৪ বলে ৬৪ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলে ফেরেন। কোহলিকে শেষঅবধি ফেরাতে পারেনি সফরকারী বোলাররা। ৭ চার ও ২ ছয়ে ৫২ বলে ৮০ রানে অপরাজিত থেকে ইনিংসের আগাগোড়া ব্যাট করেছেন ভারত অধিনায়ক।

বিজ্ঞাপন

সূর্যকুমার যাদব ৩ চার ২ ছয়ে ১৭ বলে ৩২ করে রানের ধারা সচল রাখেন। শেষে ৪ চার ২ ছয়ে ১৭ বলে ৩৯ করে অপরাজিত থাকেন হার্দিক পান্ডিয়া। অবিচ্ছিন্ন তৃতীয় উইকেট জুটির কোহলির সাথে মিলে ৪১ বলে ৮০ রান এনে দেন তিনি।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে রানের খাতা খোলার আগেই জেসন রয়কে হারায় ইংল্যান্ড। এরপর জস বাটলার ও ডেভিড মালান ৮২ বলে ১৩০ রানের জুটি গড়ে আশার পালে হাওয়া দিয়েছিলেন।

বাটলার ২ চার ও ৪ ছয়ে ৩৪ বলে ৫২, এবং মালান ৯ চার ও ২ ছয়ে ৪৬ বলে ৬৮ করে সাজঘরে ফিরতেই সব শেষ ইংলিশদের। এরপর টপাটপ উইকেট হারিয়েছে তারা।

মালান এদিন টি-টুয়েন্টিতে দ্রুততম হাজার রানের রেকর্ড গড়েছেন। ২৪ ইনিংস লাগল তার। রেকর্ড এতদিন ছিল পাকিস্তানি বাবর আজমের দখলে, ২৬ ইনিংস লেগেছিল তার এক হাজারে যেতে।

শার্দূল ঠাকুর খরুচে হলেও ৩ উইকেট নিয়ে সেরা। ২ উইকেট গেছে ৪ ওভারে মাত্র ১৫ রান দেয়া ভূবনেশ্বর কুমারের ঝুলিতে, ম্যাচসেরাও তিনি। একটি করে উইকেট নিয়েছেন হার্দিক ও নটরাজন।