চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রেমের টানে ‘শয়তানের ব্রিজের’ সঙ্গে বিয়ে

রূপকথার মতো প্রেম আর বিয়ের স্বপ্ন মানুষকে কোথায় না নিয়ে যায়! এমনি করে এক অস্ট্রেলীয় নারী তার ভালোবাসাকে খুঁজে পেলেন ফ্রান্সে, আর ঠিক করলেন তাকেই বিয়ে করবেন।

কিন্তু জোডি রোজ নামের ওই নারীর জীবনসঙ্গী কোনো মানুষ নয়, একটি প্রাচীন ব্রিজ বা সেতু!

বিজ্ঞাপন

রোজ ছিলেন সিডনির অধিবাসী। ফ্রান্সের দক্ষিণাঞ্চলে অবস্থিত সেরেটের টেক নদীর ওপর অবস্থিত ‘লা পন্ত দ্যুঁ দিয়াবলে’ (অর্থ: শয়তানের সেতু) সেতুর সঙ্গে ২০১৩ সালে তিনি বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হন।

ফ্রান্স ভ্রমণে গিয়ে ১৪ শতকে নির্মিত প্রাচীন এই পাথুরে সেতুটির প্রেমে পড়ে যান রোজ। সিদ্ধান্ত নেন তার স্বামী হবে এই ব্রিজটিই।ব্রিজ-বিয়ে-ফ্রান্স

তাই ওই বছরই ১৪ জন অতিথির উপস্থিতিতে আয়োজিত ছোট্ট একটি অনুষ্ঠানে বিয়েটা সেরে ফেলেন। নবদম্পতিকে আশীর্বাদ জানাতে আসেন খোদ প্রতিবেশী শহর সেইন্ট জ্যঁ-দ্য-ফোস’র মেয়র।

সানডে নাইট পত্রিকাকে সম্প্রতি দেয়া এক সাক্ষাতকারে জোডি রোজ বলেন, ব্রিজকে বিয়ে করার সেই অনুভূতি ছিল ‘খুব সুন্দর’। জড়বস্তুকে মানুষের বৈশিষ্ট্য দিয়ে বিশেষায়িত করার এক ধরনের মানসিক অবস্থা ‘সিনেস্থেসিয়া’ নিয়ে প্রতিবেদন তৈরির অংশ হিসেবে রোজের সঙ্গে কথা বলেছিল পত্রিকাটি।

‘আমি আসলে খুবই নার্ভাস ছিলাম… নিজেকে বিয়ের কনে মনে হচ্ছিল। আমি চাইছিলাম আমার বিয়ের দিনটা হোক রাজকন্যার বিয়ের মতো,’ বলেন রোজ।

বিজ্ঞাপন

ছয় বছর পর রোজ এখনো বিয়ের সেই আংটি গর্বভরে পরে আছেন। অন্যদিকে বিশেষভাবে বানানো বিশাল একটা আংটি বসানো আছে সেতুটির একটি অংশে।ব্রিজ-বিয়ে-ফ্রান্স

সাক্ষাতকারে রোজ বলেন, ‘আমি ওকে বিয়ের আংটি পরিয়ে দিয়েছিলাম… মানে, আপনি তো তাকে দেখেছেন। ও সুদর্শন, শক্তিশালী ও দৃঢ়। তাকে দেখে আমার মনে হয়েছিল, হ্যাঁ, এমন কারও সঙ্গেই আমার মনের মিল হবে, এবং এমন একজনই আমাকে ধরে রাখতে পারবে।’

বিয়ের সময় নিজের ব্লগে রোজ লিখেছিলেন, সেতু নিয়ে একটি মিউজিক প্রজেক্টের কাজের জন্য পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়াচ্ছিলেন তিনি। এমন সময় লা পন্ত দ্যুঁ দিয়াবলে’কে দেখেই তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন, সে-ই তার ‘জীবনসঙ্গী’ হবে।

‘ও আমাকে মাটির কাছাকাছি থাকার অনুভূতি দেয়। আমার ভবঘুরে জীবন থেকে বিরাম নিতে আগ্রহী করে তোলে,’ বলেন রোজ, ‘ও স্থির, শান্ত, মাঠির কাছাকাছি তার শেকড়। যেখানে আমি ভবঘুরে, অস্থির, সবসময় পথে পথে ঘুরি।’ব্রিজ-বিয়ে-ফ্রান্স

জীবনসঙ্গীরূপী সেতুটি তাকে নিরাপত্তা আর অস্থির জীবনে বিরতির অনুভূতি দেয় উল্লেখ করে রোজ বলেন, ‘ও বোঝে আমি অন্য সেতু এবং পুরুষকে ভালোবাসি। কিন্তু আমাদের ভালোবাসা জীবনের হরেক খেয়ালের মিশেলে তৈরি হয়েছে।’

রোজ বলেন, ‘শয়তানের সেতু’ নামের ব্রিজটির মাঝে সেই সব ধরনের বৈশিষ্ট্য আছে যা তিনি নিজের স্বামীর মধ্যে চেয়েছিলেন।

ব্রিজের সঙ্গে এই বিয়েকে ফ্রান্সে আইনত বৈধতা দেয়া না হলেও রোজের দাবি তাদের বৈবাহিক বন্ধন খুবই দৃঢ়।