চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রতারণার অভিযোগে টেসলার চেয়ারম্যান পদ ছাড়তে বাধ্য হচ্ছেন ইলন মাস্ক

নামকরা ইলেকট্রিক গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলার পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান পদ ছাড়তে বাধ্য হচ্ছেন প্রযুক্তি ধনকুবের ইলন মাস্ক। প্রতারণা মামলা নিষ্পত্তিতে পদ ছাড়ার পাশাপাশি ২ কোটি ডলার জরিমানা গুণতেও রাজি হয়েছেন তিনি।

গত ৭ আগস্ট টুইটারে মাস্ক জানান, টেসলাকে প্রাইভেট কোম্পানি করা হবে এবং এজন্য যথেষ্ট ফান্ড তার আছে। কোম্পানির প্রতিটি পাবলিক শেয়ার ৪২০ ডলারে কেনা যাবে।

মাস্কের এই টুইট বার্তার পর টেসলার শেয়ার বিক্রি বেড়ে যায়। কিন্তু এরপরই টেসলার শেয়ার দাম ৪ শতাংশ কমে যায়।  কারণ আদতে ফান্ডের কোন নিশ্চয়তা ছিলো না।  তাই এতে অনেকে ক্ষতির মুখে পড়ে।

বিজ্ঞাপন

এরপর মাস্কের ওই দাবি অসত্য এবং বিভ্রান্তিকর বলে জানায় যুক্তরাষ্ট্রের সিকিউরিটি অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি)। কোম্পানি শেয়ারবাজার থেকে গুটিয়ে নেয়া এবং ফান্ড নিয়ে টেসলার সঙ্গে মাস্ক কোনো আলোচনাই করেননি। তাই বিনিয়োগকারীদের বিভ্রান্ত করার অভিযোগে এসইসি মাস্কের বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলা করে।

মামলা থেকে মুক্তি পেতেই পদ থেকে সরে দাঁড়ানো এবং আর্থিক জরিমানার বিষয়ে এসইসি’র সঙ্গে সমঝোতা করেন মাস্ক। সমঝোতা অনুযায়ী, আগামী ৪৫ দিনের মধ্যেই তাকে চেয়ারম্যানের পদ ছাড়তে হবে। তবে তিনি টেসলার সিইও হিসেবে থাকবেন।

এছাড়াও এসইসির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, পরবর্তী তিন বছরের জন্য তিনি টেসলার চেয়ারম্যান পদে বসার জন্য নির্বাচন করতে পারবেন না । তার জায়গায় অন্য দুই ব্যক্তিকে পরিচালকের দায়িত্ব দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন