চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘নট ফর সেল’ লেখা সাবানের প্যাকেটে ইয়াবা!

কক্সবাজারে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের জন্য বিনামূল্যের সাবান হাতঘুরে চলে আসে কালোবাজারে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে ফাঁকি দিতে সেসব সাবানের প্যাকেটগুলো সংগ্রহ করে ইয়াবা পাচারে ব্যবহার করছে মাদক কারবারীরা।

সোমবার বিকেলে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে অভিযান চালিয়ে একটি কাভার্ডভ্যানের বডিতে ঝালাই করে আনা ১৫ হাজার পিস ইয়াবাসহ একজনকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-২)।

আটক মো. জাকির হোসেন (২৮) রাজশাহীর পুঠিয়ার বাসিন্দা। তিনি কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে মাদকের চালানটি নিয়ে গাজীপুরের উদ্দেশে ঢাকায় আসেন।

র‌্যাব-২ এর স্পেশালাইজড ক্রাইম প্রিভেনশন কোম্পানির কমান্ডার পুলিশ সুপার (এসপি) মুহম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী বলেন, কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে আসা একটি কাভার্ডভ্যানের পেছনের দরজার ভেতরে ঝালাই করে সাবানের প্যাকেটভর্তি ইয়াবাগুলো আনা হয়েছিল। চালানটির মূল মালিক রায়হান নামে এক মাদক ব্যবসায়ীর।

আটক মো. জাকির হোসেন

বিজ্ঞাপন

কাভার্ডভ্যানটির মালিক রায়হান নামের ওই ব্যক্তি। যেটির পেছনের দরজা গ্র‍্যান্ডিং মেশিন দিয়ে ঝালাই কেটে ১৫ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। ইয়াবাগুলি সেভলন সাবানের প্যাকেটে ভরা। সাবানের প্যাকেটের গায়ে “নট ফর সেল” লেখা আছে।

গত ৩ মার্চ পিকনিকের বাসের আড়ালে ২০ হাজার পিস ইয়াবার চালানটি রায়হানের ছিল। এছাড়া, পাকস্থলীতে করে আনা ইয়াবার বেশ ক’টি চালান র‌্যাব-২ আটক করে, সেসব ইয়াবার মূল ডিলারও রায়হান।

আটক জাকিরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে তিনি জানান, রোহিঙ্গাদের জন্য বিনামূল্যে যে সকল সাবান সরবরাহ করা হয় তা হাত ঘুরে কালো বাজারে চলে আসে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দেয়ার জন্য কালো বাজারে আসা সে সকল সাবানের প্যাকেট মাদক ব্যবসায়ীরা সংগ্রহ করে তাতে বিশেষ কায়দায় ইয়াবার প্যাকেট ভরে গাড়ীর বডিতে ঝালাই করে নিয়ে আসে।

এই কাভার্ডভ্যানের বডিতে ঝালাই করে আনা ১৫ হাজার পিস ইয়াবা

আটক জাকিরসহ মাদকের মূল ডিলারদের বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে তেজগাঁও থানায় একটি মামলা দায়ের করা হবে বলেও জানান এসপি মহিউদ্দিন ফারুকী।

শেয়ার করুন: