চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দিনাজপুরে এক ঘণ্টার প্রতিকী মেয়র সুইটি

দিনাজপুরে এক ঘণ্টার প্রতিকী মেয়রের দায়িত্ব পালন করলেন জিনিয়া আক্তার সুইটি। 

বিজ্ঞাপন

ন্যাশনাল চিলড্রেন’স টাস্কফোর্স (এনসিটিএফ) দিনাজপুর’র উদ্যোগে বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত  দিনাজপুর পৌরসভার প্রতিকী মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করলেন সুইটি। সুইটি এনসিটিএফ দিনাজপুরের সভাপতি।

বিজ্ঞাপন

এক ঘণ্টার মেয়র জিনিয়া আক্তার সুইটি দায়িত্ব পালনকালে পৌরসভায় সেবা গ্রহণকারীদের উদ্দ্যেশ্যে বলেন, আমার মেয়র হিসেবে স্বপ্ন দিনাজপুর পৌর শহরটি মাদকমুক্ত হিসেবে গড়ে তোলা। এছাড়াও শিশুবান্ধব পরিবেশ সম্পন্ন পৌর এলাকা ও নারীবান্ধব পৌর এলাকা গঠনে বিশেষ ভূমিকা পালন করতে চাই আমি। ছিন্নমূল ও পথশিশুদের জন্য নিরাপদ স্থান তৈরি করতে সকলের সহযোগিতা নিয়ে একটি সুসজ্জিত সুন্দর পৌর শহর গঠন করা। ১৮ বছরের নিচে শিশুরা বাল্য বিবাহের শিকার হচ্ছে, জাতি আজ ধ্বংসের মুখে, তাই বাল্য বিবাহমুক্ত শহর গঠন করা আমার মূল লক্ষ্য।
এক ঘণ্টার প্রতিকী মেয়রের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি শেষে পুনরায় মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণের পর পৌর মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম এনসিটিএফ’র সদস্যদের সাধুবাদ জানান। সে সময় তিনি বলেন, আমি আপনাদের কাছে কথা দিচ্ছি,আগামী কিছুদিনের মধ্যে দিনাজপুর শিশু পার্কটিকে একটি আধুনিক শিশুপার্ক হিসেবে গড়ে তুলবো। এজন্যে কাজ করে যাবো, শহরটি শিশু ও নারীবান্ধব পরিবেশ এবং আলোকিত পরিবেশে ফিরিয়ে আনতে পৌর পরিষদ কাজ করে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে সরকার পৌরসভায় ৩’শত কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন বিভিন্ন উন্নয়ন কাজের জন্য। তাই,আগামীতে আমার প্রধান লক্ষ্য শহরটির পানি নিস্কাষনের ব্যবস্থা করার লক্ষে ৫০টি মাস্টার ড্রেন অনুমোদনের জন্য মন্ত্রণালয়ে নকশা প্রেরণ করেছি।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, এনসিটিএফ দিনাজপুরের ভলেন্টিয়ার এস এম আহনাফ জাওয়াদ আদিব, কবিতা দাস, সদস্য ফারুক হোসেন, মোমিনুল ইসলাম, ফাহমিদা, আসমাউল হুসনা, মোঃ সিয়াম শাহরিয়ার, সৈয়দা জারিন তাসনিম ঐশী, সৈয়দ ইয়াসিন আলম, সমাজ কর্মী মকিদ হয়দার শিপন,  সংগঠক মোঃ মোসাদ্দেক হোসেনসহ অন্যরা।