চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘দিকভ্রান্ত’ সরফরাজের সমালোচনায় শচীন

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিপক্ষে বেশকিছু চোখে পড়ার মতো ভুল করেছেন সরফরাজ আহমেদ। পাকিস্তান অধিনায়কের সেইসব ভুলের মাশুল ম্যাচ দিয়ে পরিশোধ করতে হয়েছে বলে সরফরাজের কড়া সমালোচনা করেছেন ভারত কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকার!

ভারতীয় পত্রিকা ‘ইন্ডিয়া টুডে’তে ম্যাচের কাটাছেঁড়া করতে গিয়ে পাকিস্তান তথা সরফরাজের ভুলগুলো চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়েছেন শচীন। তার মতে সরফরাজের সবচেয়ে ভুল ছিল টস জিতে ভারতকে ব্যাটিং করতে পাঠানো।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

লম্বা ব্যাটিং লাইনআপের ভারত সবসময় আগে ব্যাট করে বিশাল সংগ্রহ তুলে চেষ্টা করে প্রতিপক্ষকে চাপে ফেলতে। রোববারও সেই চেষ্টাই ছিল। রোহিত শর্মার ১৪০, বিরাট কোহলির ৭৭ ও লোকেশ রাহুলের ৫৭ রানে ৩৩৬ তুলে ভারত উদ্দেশ্যে নিঃসন্দেহে সফল। পরে ব্যাটিংয়ে নেমে নিজেদের কাজ নিজেরাই কঠিন করে তোলে পাকিস্তান। শেষে ম্যাচ হেরে যায় ৮৯ রানে। প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের জন্য কাজটা সহজ করে দেয়ায় সরফরাজকে কাঠগড়ায় তুলেছেন শচীন।

‘ওয়াহাব রিয়াজ যখন বোলিং করতে এলো, তখন সরফরাজকে বেশ বিভ্রান্ত মনে হচ্ছিল। সে মিড-উইকেটে একজন ফিল্ডার রাখল। আবার শাদাব যখন বোলিংয়ে এলো, স্লিপে একজন ফিল্ডার বাড়ল। একজন লেগস্পিনার যখন ঠিক লাইন-লেন্থে বল করতে পারে না, তখন এধরনের আক্রমণাত্মক ফিল্ডিং বোলারকে বাড়তি চাপে ফেলে দেয়। বড় ধরণের ম্যাচে এ ধরনের কৌশল মস্ত বড় ভুল!’

‘তাদের কল্পনা শক্তিতে ঘাটতি ছিল, ভাবনার পরিধি কম ছিল। যখন বল খুব একটা বাঁক খায় না, তখন ওভার দ্য উইকেটে টানা বল করে যাওয়ার কোনো দরকার ছিল না। ওয়াহাব যখন রাউন্ড দ্য উইকেটে বল করতে গেল, তখন বেশ দেরি হয়ে গেছে। হাসানই একমাত্র বোলার যে উইকেটে সুবিধা পাচ্ছিল। আমি হলে অ্যাঙ্গেল পরিবর্তন করে তাকে ভিন্ন কিছু করতে বলতাম। আমি হলে কিছুতেই একটা উইকেটও ছাড় দিতাম না।’