চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

থানবার্গকে কটাক্ষ করে চাকরি গেল ফুটবল কোচের

জলবায়ু কর্মী গ্রেটা থানবার্গকে নিয়ে ‘অত্যন্ত অনুপযুক্ত ও আপত্তিকর’ মন্তব্য করায় ইতালির চতুর্থ গ্রেডের ক্লাব গ্রোসেটো তাদের যুব কোচকে বরখাস্ত করেছে। কোচ টমাসো ক্যাসালিনি নিজের ফেসবুক পাতায় কিশোরী গ্রেটাকে লক্ষ্য করে একগুচ্ছ অশ্লীল কথা লিখেছিলেন।

ক্যাসালিনি লিখেছিলেন, ‘এই যৌনকর্মী! ১৬ বছরের কেউ কি পাউন্ডিং (আলিঙ্গনের চাপ) নিতে সক্ষম? এটা কী সঠিক বয়স?’

বিজ্ঞাপন

গত সপ্তাহে জাতিসংঘের জলবায়ু সংক্রান্ত সম্মেলনে জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে উদাসীনতার জন্য পুরো দুনিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানদের কথার তোড়ে বিঁধেছিলেন সুইডেনের কিশোরী গ্রেটা থানবার্গ। সম্মেলনে উপস্থিত না থাকলেও সেই বক্তৃতার ভিডিও টুইট করে কটাক্ষ করেছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। সমালোচনার বাইরে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কিছু না হলেও চাকরি বাঁচাতে পারলেন না ইতালিয়ান ফুটবল কোচ।

বিজ্ঞাপন

ক্যাসালিনির মন্তব্য চোখে পড়তেই তাৎক্ষণিকভাবে বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্লাব। দ্রুততার সঙ্গে এক বিবৃতিতে তারা জানায়, ‘ক্লাবের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ আচরণ না করায় ক্যাসালিনি আর ক্লাবের অংশ হবেন না। কারণ, ক্লাব টেকনিক্যাল মূল্যবোধের চেয়েও নৈতিক মূল্যবোধের প্রতি বেশি গুরুত্ব দেয়।’

বরখাস্ত হওয়ার পর ক্যাসালিনিও একটি বিবৃতি দিয়েছেন। বলেছেন, ‘আমি গত সপ্তাহে ফেসবুকে যে পোস্টটি লিখেছিলাম, তার জন্য গ্রেটা থানবার্গসহ সবার কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইছি। এটি ছিল এমন এক কাজ, যা এই তরুণ সুইডিশ কর্মীর বিরুদ্ধে ক্ষোভের মুহূর্তে লেখা হয়েছিল এবং একেবারে ভুল ভাষায়। এর বিষয়বস্তু নিয়েও আমি অনুশোচনায় পুড়ছি।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমি কখনও নাবালিকা সম্পর্কে এমন ভাবনা সত্যিই ভাবতে পারি না। সুতরাং, আমাকে আমার পদ থেকে সরিয়ে দেয়ার গ্রোসেটোর সিদ্ধান্তকে স্বেচ্ছায় গ্রহণ করেছি এবং আমার কাজে বিব্রত হওয়ায় ক্লাবের কাছে ক্ষমা চাইছি।’

জাতিসংঘের মঞ্চে দাঁড়িয়ে বিশ্বের শীর্ষ নেতাদের সামনে জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়টি জোরালভাবে তুলে ধরার পর রাতারাতি আলোচনায় উঠে এসেছেন পরিবেশকর্মী গ্রেটা থানবার্গ। তার সাহসী দৃষ্টিভঙ্গির জন্য বিশ্বের অনেকেই প্রশংসায় ভাসিয়েছেন।