চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

তিনে সাকিবের জায়গায় শান্তকে ভাবছেন কোচ

মিডলঅর্ডারে অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানদের খেলাতে চান রাসেল ডমিঙ্গো। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে সোমবার অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশের হেড কোচ জানালেন, চার-পাঁচ-ছয় নম্বর পজিশনে মুশফিক-সাকিব-মাহমুদউল্লাহদের বিবেচনা করা হচ্ছে।

সেক্ষেত্রে সাকিব আল হাসানকে তিন নম্বরে ব্যাট করতে নাও দেখা যেতে পারে। এই পজিশনে বিশ্বকাপে দুর্দান্ত করেছিলেন টাইগার অলরাউন্ডার। ৮ ইনিংসে বাঁহাতি ব্যাটসম্যান করেছিলেন ৬০৬ রান।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সাকিবের পছন্দের পজিশনে কাকে দেখা যেতে পারে সে ধারণাও দিয়েছেন কোচ। জানিয়ে দিয়েছেন সব ঠিক থাকলে দারুণ ফর্মে থাকা তরুণ ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্ত পাবেন টপঅর্ডারে ব্যাট করার দায়িত্ব।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের দল ঘোষণা হওয়ার পর সোমবার বিকেলে শুরু হয় টাইগারদের প্রথম অনুশীলন। কিছুক্ষণ পর জুম প্ল্যাটফর্মে পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন ডমিঙ্গো।

বিজ্ঞাপন

তাতে টাইগারদের সাউথ আফ্রিকান কোচ বললেন, ‘ইতিমধ্যে খেলোয়াড়দের সঙ্গে আমার আলোচনা পর্ব শেষ হয়েছে। তারা প্রত্যেকে তাদের রোল সম্পর্কে অবগত। যদিও একাদশ কেমন হবে সেটি তাদের বলা হয়নি। তবে তারা আজ তাদের জায়গা সম্পর্কে জেনে যাবে এবং সেটি সংবাদমাধ্যমে আসার আগেই জানবে।’

‘নিঃসন্দেহে শান্ত দারুণ ফর্মে আছে। এটা দারুণ ব্যাপার যে সাকিব ফিরেছে। সে বিশ্বকাপে তিন নম্বর পজিশনে অবিশ্বাস্য খেলেছে। তবে এই মুহূর্তে আমি অভিজ্ঞদের চার, পাঁচ ও ছয়ে দেখছি। সেখানে সাকিব, মুশফিক ও রিয়াদকে চিন্তা করছি। এটা আমাদের মিডলঅর্ডারে ভালো অভিজ্ঞতা দেবে। উপমহাদেশে খেলা, মিডলঅর্ডার খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

একবছরের নিষেধাজ্ঞাসহ দীর্ঘ বিরতির পর নভেম্বরে বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপ দিয়ে ক্রিকেটে ফেরা সাকিব তিনে ব্যাট করে সুবিধা করতে পারেননি। ওপেনিংসহ নানা জায়গায় ব্যাটিং করেও মানিয়ে নিতে পারেননি। ৯ ইনিংসে করেছেন মোটে ১১০ রান।

অন্যদিকে শান্ত ৮ ইনিংসে করেছেন ৩০১ রান। ২০২৩ বিশ্বকাপ সামনে রেখে তরুণদের তৈরি করার মিশনে এ বাঁহাতিকে তিনে দেখতে চান কোচ।

‘সাকিব আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে অনেকদিন। ৪ নম্বরে খেললে সে দম ফেলার সুযোগ পাবে। আমরা জানি সে বিশ্বমানের ক্রিকেটার। এই ব্যাটিং লাইনআপ পাথরে গড়া নয়। বিশ্বকাপের অনেক দেরি। স্থায়ী ব্যাটিং লাইনআপ গড়ার আগে আমাদের কিছু বিষয় দেখতে হবে।’