চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ডিসেম্বরেই ভ্যাকসিন দেয়ার কাজ শুরু করছে যুক্তরাষ্ট্র

ডিসেম্বরের প্রথমার্ধেই করোনা ভ্যাকসিন দেয়ার কাজ শুরু করছে যুক্তরাষ্ট্র। রোববার দেশটির সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের একজন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা এমনটাই আশা প্রকাশ করেছেন।

বাসস জানায়, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় পর্যায়ের সংক্রমণ তীব্রতর হওয়ার প্রেক্ষিতে সর্বশেষ এমন খবর দিচ্ছে করোনা আক্রান্তে শীর্ষ দেশটি।

বিজ্ঞাপন

এর আগে শুক্রবার নিজেদের তৈরি করোনা ভ্যাকসিন জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন চেয়ে এফডিএ এর কাছে আবেদন করেছে মার্কিন সংস্থা ফাইজার ও তার জার্মান অংশীদার বায়োএনটেক।

এছাড়া অপর এক মার্কিন কোম্পানী মর্ডানা তাদের তৈরি ভ্যাকসিন ৯৫ শতাংশ কার্যকর বলে দাবি করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ভ্যাকসিন প্রদান কর্মসূচির প্রধান মুনসেফ সালোয়ি সিএনএনকে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের ফুড এন্ড ড্রাগ এডমিনিস্ট্রেশান(এফডিএ) অনুমোদন দেয়ার ২৪ ঘন্টার মধ্যে ভ্যাকসিন প্রদান কেন্দ্রগুলোতে ভ্যাকসিন পৌঁছানোর পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সালেয়ি এসময় ডিসেম্বরের ১১/১২ তারিখ থেকে ভ্যাকসিন দেয়ার কর্মসূচি শুরু হবে বলে জানান।।

ফাইজারের ভ্যাকসিন বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে এফডিএ’র ভ্যাকসিন উপদেষ্টারা ১০ ডিসেম্বর বৈঠকে বসবেন।

সালোয়ি জানান, ডিসেম্বরেই প্রায় ২ কোটি লোককে ভ্যাকসিন দেয়া হবে। এর পর প্রতি মাসে ৩ কোটি লোককে পর্যায়ক্রমে ভ্যাকসিনের আওতায় আনা হবে।

মহামারী করোনাভাইরাস আক্রান্তের শীর্ষ দেশ যুক্তরাষ্ট্র।  দেশটিতে মোট ১ কোটি ২৫ লাখ ৮৯ হাজার ৮৮ মানুষ আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৬২ হাজার ৭০১ জন।

করোনার দ্বিতীয় পযায়ে এসে আগের চেয়ে ফের বেড়েছে আক্রান্তের হার।  দেশটির স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ আগামী সপ্তাহের থ্যাংকস গিভিং হলিডেতে জনগণকে বাড়িতে অবস্থান করার আহ্বান জানিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষক সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. এন্থনি ফৌসি সতর্ক করে বলেছেন, ডিসেম্বরের মাঝামাঝি থেকে শেষ পর্যন্ত ২ কোটি লোক হয়তো ভ্যাকসিন পাবে। কিন্তু জনগণ হলিডে’র এ সময়ে সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হলে পরিস্থিতি উন্নতির বদলে আরো খারাপ হতে পারে।