চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ডা. সাবরিনার মামলা ডিবিতে হস্তান্তর

জেকেজি হেলথ কেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা শারমিন হুসাইনের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় দায়ের করা প্রতারণা মামলা ডিবিতে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মঙ্গলবার তেজগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাউদ্দিন মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ‘গতকাল সোমবার রাতে মামলাটি ডিবিতে হস্তান্তর করা হয়েছে। এখন ডিবি তেজগাঁও বিভাগ এটি তদন্ত করবে।’

এর আগে সোমবার কোভিড-১৯ পরীক্ষার ভুয়া প্রতিবেদন দেওয়ার মামলায় ডা. সাবরিনার তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন ঢাকার একটি আদালত।

তেজগাঁও থানার পরিদর্শক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা (আইও) হাসনাত খন্দকার ডা. সাবরিনার চার দিনের রিমান্ড আবেদন চেয়ে আদালতে হাজির করার পর মহানগর হাকিম মো. শাহিনুর রহমান এই আদেশ দেন।

বিজ্ঞাপন

রোববার দুপুরে করোনাভাইরাস পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলায় হৃদরোগ ইনিস্টিটিউট থেকে ডা. সাবরিনাকে পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের ডিসির কার্যালয়ে ডেকে নেয় পুলিশ। পরে তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

এরপর সরকারি কর্মচারী বিধিমালা ভঙ্গের অভিযোগে ডা. সাবরিনাকে সাময়িক বরখাস্ত করার কথা জানায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

জেকেজি হেলথ কেয়ারের নমুনা সংগ্রহের যে অনুমোদন ছিল, তাও ২৪ জুন বাতিল করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

আরিফুল হক চৌধুরী জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের কার্ডিয়াক সার্জারি বিভাগের রেজিস্ট্রারের দায়িত্ব পালন করে আসা ডা. সাবরিনা শারমিন হুসাইনের স্বামী। সে কারণে সাবরিনা আরিফ চৌধুরী নামেই তিনি পরিচিত।

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে নভেল করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) নমুনা সংগ্রহ করে থাকে ‘জোবেদা খাতুন স্বাস্থ্যসেবা প্রজেক্ট’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান। কিন্তু তারা কোনো ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়াই তৈরি করতেন ‘করোনার পজিটিভ-নেগেটিভ রিপোর্ট’।

গত ২৩ জুন জেকেজি হেলথ কেয়ারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল চৌধুরীসহ ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে সোমবার আশকোনা থেকে হুমায়ুন কবীর ও তার স্ত্রী তানজিনা পাটোয়ারীকে গ্রেপ্তার করা হয়।