চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

জলবায়ু সম্মেলন: ৬৩২ মিলিয়ন ডলার সহায়তার প্রতিশ্রুতি

গ্লাসগো, স্কটল্যান্ড থেকে: গ্লাসগো জলবায়ু সম্মেলনে এখন পর্যন্ত ৬৩২ মিলিয়ন ডলার বরাদ্দের প্রতিশ্রুতি এসেছে। জলবায়ু পরিবর্তনে হুমকিতে থাকা দেশগুলোকে ওই সহায়তা দেবে শিল্পোন্নত দেশগুলো।

অন্যদিকে ফসিল ফুয়েল নিষিদ্ধ করাসহ কার্যকর উদ্যোগের দাবিতে সম্মেলন চত্ত্বরের বাইরে বিক্ষোভ করছে পরিবেশকর্মীরা।

গ্লাসগোর বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলন প্রায় শেষের দিকে। এখন শুধু কপ-২৬ এর চুড়ান্ত ঘোষণার অপেক্ষা। তবে এখনো বরাদ্দ আদায়ে চলছে দেন-দরবার। পাশাপাশি জলবায়ু সংকট মোকাবেলায় আলোচনা হচ্ছে বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোস্তফা কামাল বলেন, গ্লাসগো জলবায়ু সম্মেলনে এখন পর্যন্ত ৬৩২ মিলিয়ন ডলার বরাদ্দের প্রতিশ্রুতি এসেছে। জলবায়ু পরিবর্তনে হুমকিতে থাকা দেশগুলোকে ওই সহায়তা দেবে শিল্পোন্নত দেশগুলো। যা বিভিন্ন জলবায়ু নিয়ে কাজ করা সংস্থা ও সংগঠনের ফান্ডিংয়ের মাধ্যমে বাস্তবায়িত হবে।

বিজ্ঞাপন

অন্য সব কপ সম্মেলনের মতোই এবারও প্রতিদিনই জড়ো হচ্ছেন পরিবেশবাদিরা। প্লাকার্ড হাতে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ করছেন তারা।

প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মুকিত মজুমদার বাবু বলেন, পরিবেশবাদিরা জলবায়ু পরিবর্তন সম্মেলনের বাইরে শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলনের মাধ্যমে দাবি উপস্থাপন করছে। এর কারণ হচ্ছে জলবায়ু পরিবর্তন সম্মেলনে যে শিল্পোন্নত দেশগুলো রয়েছে তাদের ওপর একটি চাপ প্রয়োগ করার জন্যই এ আন্দোলন।

পরিবেশবাদিদের আন্দোলনের প্রয়োজন আছে উল্লেখ করে মুকিত মজুমদার বাবু বলেন, জলবায়ু সম্মেলনে এই আন্দোলনের বিষয়টা খুবই গুরুন্তপূর্ণভাবে দেখা হচ্ছে। সম্মেলনের বাইরে ও ভেতরে দু’ভাবেই চাপ প্রয়োগ করলে জলবায়ু পরিবর্তন সম্মেলনের যে আলোচনা চলছে তা সামনে তরান্বিত হবে এবং সমাধান আসবে।

কার্যকর সিদ্ধান্ত নিতে ধীর গতির কারণে বিশ্বনেতাদের উপর আস্থা রাখতে পারছেন না আন্দোলনকারীরা।

বিজ্ঞাপন