চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীর জামিন, বিজিবি’র নায়েব সুবেদারকে তলব

মহিষ পাচারের অভিযোগে করা মামলায় ‘চতুর্থ শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর ১৯ বছর বয়স দেখানোর ঘটনায় সিলেটের জৈন্তাপুর বিজিবি ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার সাহাব উদ্দিনকে তলব করেছেন হাইকোর্ট।

আগামী ৭ অক্টোবর হাইকোর্টে হাজির হয়ে তাকে এই বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ওই শিক্ষার্থী ও তার বাবা-মা’সহ ৫ জনের আট সপ্তাহের আগাম জামিন মঞ্জুর করে রোববার বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. জাহাঙ্গীর হোসেন। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারওয়ার হোসেন বাপ্পী।

রাষ্ট্রপক্ষের এই আইনজীবী চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন: আগামী ৭ অক্টোবর ওই শিক্ষার্থীকে আবার হাইকোর্টে আনতে বলা হয়েছে। ওই দিন তাকে হাইকোর্টে উপস্থিত করার দায়িত্ব সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজলকে দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন: আদালত ওই শিক্ষার্থীকে ৭ অক্টোবর উপস্থিত করার দায়িত্ব আমাকে দিয়েছেন। আমি ওই শিক্ষার্থীর পরিবারকে বলেছি আমি আনার ব্যবস্থা করব। এছাড়া আজই ওই শিক্ষার্থীর পরিবারকে আমার পক্ষ থেকে কিছু আর্থিক সহযোগিতা করা হয়েছে।

অন্যদিকে আজ হাইকোর্ট থেকে এই মামলায় জামিন প্রাপ্তদের দাবি, ‘জৈন্তাপুরের খিলাতৈল এলাকার ব্যবসায়ী সাইদুল বেপারী ২০টি মহিষ কিনে বাড়ি আনেন। কিন্তু বিজিবি সদস্যরা গত ১৩ সেপ্টেম্বর ওই মহিষগুলো আটক করে নিয়ে যায়। এরপর বিজিবির নায়েব সুবেদার সাহাব উদ্দিন জৈন্তাপুর থানায় মামলা করেন। ১৭ জনের নাম উল্লেখসহ আরও ৮/১০ জন অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিকে এই মামলায় আসামি করা হয়। যেখানে চতুর্থ শ্রেণীর ওই শিক্ষার্থীর বয়স ‘১৯ বছর’ দেখানো হয়। এরপর ওই মামলায় হাইকোর্টে আগাম জামিনের আবেদন করা হয়।