চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

খালেদা জিয়া এবং তার দলের এত বিদেশপ্রীতি কেন: তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন: করোনাকালেও বাংলাদেশে যখন উন্নতমানের চিকিৎসা হচ্ছে, অনেক এমপি, মন্ত্রী দেশে চিকিৎসা করে ভালো হয়েছেন, আবার অনেকে মৃত্যুবরণও করেছেন; সেখানে বেগম খালেদা জিয়া কিংবা তার দলের এত বিদেশপ্রীতি কেন?

শুক্রবার বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রে নতুন তালিকাভূক্ত শিল্পীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী। অনুষ্ঠান শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

ড. হাছান মাহমুদ বলেন: বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া আদালত কর্তৃক জামিন কিংবা খালাস পাননি। তার পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী প্রশাসনিক ক্ষমতাবলে তাকে ৬ মাসের জন্য ঘরে থাকার সুযোগ করে দিয়েছেন। এজন্য মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের উচিত ছিল প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দেয়া।

‌‘সেটি না করে বরং তিনি বলছেন উন্নত চিকিৎসার জন্য বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশ নিয়ে যেতে হবে। কিন্তু বাংলাদেশেও উন্নতমানের চিকিৎসা হচ্ছে। করোনাকালেও অনেক এমপি, মন্ত্রী দেশে চিকিৎসা করে ভালো হয়েছেন আবার অনেকে মৃত্যুবরণও করেছেন। সেখানে বেগম খালেদা জিয়া কিংবা তার দলের এত বিদেশপ্রীতি কেন? বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক সমস্যাগুলো অনেক পুরনো। সেগুলো নিয়ে বিএনপিকে রাজনীতি না করার আহ্বান জানাই’, বলেন তথ্যমন্ত্রী।

এর আগে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন: যতবেশি সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সাথে তরুণ যুবক যুবতীদের সম্পৃক্ত করা হবে ততবেশি তাদের মননশীলতার বিকাশ হবে। যে সমস্ত জায়গায় সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড বেশি সেখানে জঙ্গিবাদ মাথচড়া দিয়ে উঠতে পারে না। মাদক এবং জঙ্গিবাদের থাবা থেকে তরুণদের রক্ষা করতে সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড বড় ভূমিকা রাখতে পারে।

বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) মহাপরিচালক সোহরাব হোসেনের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা এম রেজাউল করীম চৌধুরী, তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. মিজান উল আলম, বিশিষ্ঠ নাট্যব্যক্তিত্ব ও সাংস্কৃতিক কর্মী আহমেদ ইকবাল হায়দার, বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের জেনারেল ম্যানেজার নিতাই কুমার ভট্টাচার্যসহ অন্যরা।

বিজ্ঞাপন