চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার গ্রহণ করছেন না মোশাররফ করিম

সদ্য ঘোষিত জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৮ তে ‘শ্রেষ্ঠ অভিনেতা কৌতুক চরিত্রে’ যৌথভাবে পুরস্কার পেয়েছেন আফজাল শরীফ ও মোশাররফ করিম। তবে পুরস্কার ঘোষণার দুদিন পর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের জুরী বোর্ডের কাছে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন ছোট ও বড় পর্দার জনপ্রিয় মুখ মোশাররফ করিম।

ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত ও নূর ইমরান মিঠু পরিচালিত ২০১৮ সালের আলোচিত ছবি ‘কমলা রকেট’-এ মফিজুর চরিত্রের জন্য ‘শ্রেষ্ঠ অভিনেতা কৌতুক চরিত্র’ হিসেবে জুরী বোর্ড তাকে পুরস্কারের জন্য মনোনীত করে। এরপরই সোশাল মিডিয়ায় রীতিমত সমালোচনার ঝড় বইয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

‘কমলা রকেট’ চলচ্চিত্রটি যারা দেখেছেন, তাদের প্রায় সবাই মোশাররফ করিমের চরিত্রটি কোনোভাবেই কৌতুক অভিনেতার চরিত্র নয় বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের মতামত ব্যক্ত করেন। এমন আলোচনা-সমালোচনার দুদিন পরই সংবাদ মাধ্যমে ‘প্রেস বিজ্ঞপ্তি’ পাঠিয়ে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার থেকে নিজের নাম প্রত্যাহারের অনুরোধ জানান মোশাররফ করিম।

বর্তমানে তিনি ব্যক্তিগত কাজে মালয়েশিয়াতে অবস্থান করছেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তিনি যা বলেছেন, তা হুবুহু তুলে ধরা হলো:

সকলের সদয় অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে, গত ৭ নভেম্বর দেশের চলচ্চিত্র অঙ্গনের সবচেয়ে বড় পুরস্কার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে। ২০১৮ সালের পুরস্কার প্রাপ্তদের তালিকায় আমি নিজের নামও দেখতে পেয়েছি। নূর ইমরান মিঠু পরিচালিত ‘কমলা রকেট’ চলচ্চিত্রের জন্য আমাকে ‘শ্রেষ্ঠ অভিনেতা কৌতুক চরিত্রে’ পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। ধন্যবাদ সংশ্লিষ্টদের।

কিন্তু এই পুরস্কার প্রাপ্তি নিয়ে আমার কিছু কথা রয়েছে। তার আগে সবাইকে অবগত করতে চাই, কৌতুকপূর্ণ বা কমেডি চরিত্র আমার কাছে অন্যসব চরিত্রের মতোই সমান গুরুত্বপূর্ণ।

কিন্তু ‘কমলা রকেট’ চলচ্চিত্রে আমি যে চরিত্রটিতে অভিনয় করেছি সেটি কোনোভাবেই কমেডি বা কৌতুক চরিত্র নয়। ছবিটির চিত্রনাট্যকার, পরিচালকসহ সহশিল্পীরা নিশ্চয় অবগত আছেন। একই সঙ্গে যারা ছবিটি দেখেছেন তারাও নিশ্চয় উপলব্দি করেছেন ‘কমলা রকেট’ এ আমার অভিনয় করা ‘মফিজুর’ চরিত্রটি কোনো কৌতুক চরিত্র নয়। এটি প্রধান চরিত্রগুলির একটি।

তাই, সম্মানিত জুরি বোর্ডের কাছে আমার অনুরোধ, ‘শ্রেষ্ঠ অভিনেতা কৌতুক চরিত্রে’ আমার জন্য বরাদ্দ করা পুরস্কারটা প্রত্যাহার করে নিলে ভালো হয়। না হলে আমার পক্ষে এই পুরস্কার গ্রহণ করা সম্ভব নয়।

আমি কাজটাকে ভালোবেসে আমৃত্যু কাজ করে যেতে চাই। আমার ভক্ত, শুভাকাঙ্খিসহ সকলের কাছে আমার ও আমার পরিবারের জন্য দোয়া চাই। একই সঙ্গে যারা পুরস্কার পেয়েছেন সবাইকে অভিনন্দন জানাই।

লক্ষণীয়: এই মুহুর্তে আমি ব্যক্তিগত কাজে দেশের বাইরে অবস্থান করছি। তাই লিখিতভাবে সবাইকে জানানো হলো। আশা করছি পরিস্থিতিটি বুঝতে পেরে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

Bellow Post-Green View