চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কোয়ালিটি মেনে কাজ করি, ভাইরাল খুঁজি না: স্পর্শিয়া

স্পর্শিয়ার ইউটিউব চ্যানেলে প্রথম এডিসোডেই অতিথি হিসেবে দেখা যাবে অভিনেত্রী সাফা কবিরকে…

অভিনেত্রী অর্চিতা স্পর্শিয়া। এবার আসছেন নতুন পরিচয়ে। অনলাইন প্ল্যাটফর্মের জনপ্রিয় মাধ্যম ‘ইউটিউব’-এ নিজের নামে (অর্চিতা স্পর্শিয়া) চ্যানেল খুলেছেন। ইতোমধ্যে ওই চ্যানেলের একটি প্রমো ছেড়েছেন। সেখানে দেখা গেল, স্পর্শিয়া নিজেই সঞ্চালক! শোবিজের কয়েকজন পরিচিত মুখ নিয়ে তিনি এপিসোড তৈরি করেছেন। এসব নিয়ে চ্যানেল আই অনলাইনের সঙ্গে শুক্রবার দুপুরে কথা বললেন বেশকিছু দর্শকপ্রিয় নাটকের এই অভিনেত্রী…

ইউটিউবে আপনার নামে একটি চ্যানেল দেখা যাচ্ছে?
সপ্তাহ খানেক হলো আমার নামে একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলেছি। কেউ একজন আমাকে চ্যানেলটি খুলতে উৎসাহিত করেছেন। নামটা বলা যাবে না, হিহিহি…! চ্যানেলের কনটেন্ট তৈরিতে সাহায্য করেছে আমার মূল টিমের ৬ জন। ওই চ্যানেলে ‘উইথ স্পর্শিয়া’ নামে পাঁচটি এপিসোডে টকশো বানিয়েছি। যেখানে শোবিজে কাজ করেন এমন পরিচিত মুখরা এসে কথা বলবেন। এই অনুষ্ঠানটা অন্য চ্যানেলের জন্য করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু মাথায় এলো, আমি যেহেতু নিজে চ্যানেল করছি, আমার চ্যানেলে এপিসোডগুলো দিলে মন্দ হয়না।

বিজ্ঞাপন

কী আছে ‘উইথ স্পর্শিয়া’-তে?
ইতোমধ্যে ৫ টি পর্ব তৈরি করেছি। প্রতিটি ভিডিও ১০ মিনিট করে। ইচ্ছে করে সময় কমিয়েছি। কারণ, নিজের কাছে অনেক বড় ভিডিও দেখতে বোর লাগে। সাফা কবির, রেদওয়ান রনি, সৌভিক-জ্যাকি, সৈয়দ জামান শাওন, মাহতিম সাকিব-ইমরান হোসেন-এর মতো অতিথিদের নিয়ে পর্বগুলো সাজিয়েছি। যে পাঁচটা পর্বে অতিথিরা এসেছেন, তারা প্রত্যেকেই আমার কাছের বন্ধু। রবিবার সাফা কবিরের প্রথম সাক্ষাৎকার ছাড়বো । আশা করছি, প্রথম পর্বটা সাড়া ফেলবে। সাফা আমার খুব ঘনিষ্ঠ বন্ধু। কদিন আগে তাকে নিয়ে যে বিতর্ক হলো সেটা পূর্ণ ব্যাখ্যা সে ‘ইউথ স্পর্শিয়া’তে দিয়েছে। প্রতি সপ্তাহে একটি করে এপিসোড প্রকাশ করবো।

আপনি নিজে উপস্থপনা করছেন?
হ্যাঁ, আমি নিজে প্রথমবার উপস্থপনা করছি। বলা যায় লাইফে ফার্স্ট টাইম! তবে এটা কোনো ফরমাল শো নয়, খুবই ইনফরমাল শো। টক শো’র চেয়ে আড্ডা শো বললে আমার মনে হয় বেশি ভালো লাগবে। যারা এই মুহূর্তে ইন্ডাস্ট্রিতে ভালো কাজ করছে তারা আমার অতিথি। এখানে আলাদা করে কোনো সূচনা বা উপসংহার নেই। আড্ডা মারছি, খেয়েছি এসবই। তাই উপস্থাপনা করতেও স্বাছন্দ্য লেগেছে।

এখানে কি শুধু তারকাদের সাক্ষাৎকার প্রকাশ হবে?
শুধু টকশো নয়, আমি প্রচুর ঘোরাঘুরি করি। যেখানে যাবো ভিডিও বানাবো, ট্রাভেল ব্লগ হিসেবে তৈরি করে ভিডিও হিসেবে ছাড়া হবে চ্যানেলে। আরও অনেক পরিকল্পনা আছে এই চ্যানেলটা নিয়ে।

ইউটিউব চ্যানেল কিংবা ভিডিও নিয়ে আপনার ধারণা কেমন?
আমার তেমন কোনো ধারণা নেই। ওই যে বললাম একজন আমাকে উৎসাহিত করছে বলে আমি ইউটিউবে এসেছি। ইভেন, এখনও পর্যন্ত মাথায় ব্যবসায়িক কোনো চিন্তা আসেনি। তবে ‘উইথ স্পর্শিয়া’ সেকেন্ড সিজন করতে চাই। এটা নিয়ে বড় প্ল্যানিং আছে। পরের সিজনগুলো আরও বড় হবে। ইউটিউবের ব্যাপারটা আমার টিমই দেখভাল করবে। পূজন মজুমদার আমার ডান হাত। সে এগুলো ভালো বোঝে।

ভাইরাল হওয়ার চিন্তা নিয়েই অনেকে ইউটিউবে চ্যানেল খুলেন! আপনার মধ্যে এই চিন্তা আছে?
আমি সবসময় ফোকাস রাখি কোয়ালিটিতে। সেটা আমার প্রডাকশন হাউজ ‘কচ্ছপ ফিল্মস’-এর কাজ হোক, নিজের অভিনীত নাটক হোক; যাই হোক না কেন আমি সবসময় কোয়ালিটি মেনে কাজ করি। ভাইরাল খুঁজি না। আমি মনে করি, ভালো প্রোডাকশন হলে বা কোয়ালিটিফুল কাজ করলে মানুষ এমনিই দেখবে। ভাইরাল হওয়ার জন্য আজেবাজে ক্যাপশন, টাইটেল ব্যবহারের প্রয়োজন পড়বে না। উমুক বললো, একি করলেন-এই টাইপ ক্যাপশন আমার একদম পছন্দ নয়। আমার চ্যানেলে এমন ক্যাপশনে কোনো ভিডিও ছাড়া হবে না। আড্ডা হবে, ফান হবে কিন্তু কনটেন্টের কোয়ালিটি থাকবে।
অভিনেত্রী স্পর্শিয়ার ইউটিউব চ্যানেল ‘উইথ স্পর্শিয়া’:

Bellow Post-Green View