চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কোন্দল দূর করবেন সোহান, দর্শকের পালস বুঝে সিনেমা নির্মাণের আহ্বান সুমনের

নতুন নেতৃত্ব পেয়েছে চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি। সভাপতি হয়েছেন সোহানুর রহমান সোহান এবং মহাসচিব শাহীন সুমন। জাঁকজমকপূর্ণভাবে শুক্রবার (২ এপ্রিল) তারা নির্বাচিত হয়েছেন। নতুন নেতৃত্বের মাধ্যমে এ দুই নামী পরিচালক চলচ্চিত্রকে সামনে এগিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা আঁটছেন।

চ্যানেল আই অনলাইনকে তারা বললেন, কথা নয় কাজ করে প্রমাণ করে দেখাবেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সোহানুর রহমান সোহানের সিনেমার মাধ্যমে সালমান শাহ, মৌসুম, শাকিব খানের মতো তারকারা উঠে এসেছেন। এর আগেও তিনি পরিচালক সমিতির নেতৃত্বে থাকলেও এবার সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন।

সোহান বললেন, চলচ্চিত্রের মানুষদের মধ্যে অভ্যন্তরীণ কোন্দল বিরাজমান। সবার আগে কোন্দল দূর করবো। মিলেমিশে কাজ না করলে কোনোভাবেই চলচ্চিত্রের দৈন্যদশা দূর হবেনা।

তিনি বলেন, ঝগড়া হলেই ‘নিষিদ্ধ’ রীতি চালু হয়েছে। এটা বন্ধ করা হবে। নিষিদ্ধ না করে আলোচনার মাধ্যমে সবকিছু সমাধান করা যায়। যারা চলচ্চিত্র বানাচ্ছেন তারা কাজ বাদ দিয়ে নিজেদের মধ্যে কোন্দল বা জেলাসি করছে। এতে করে আসল কাজটাই করতে পারছে না। এতে করেই ইন্ডাস্ট্রি পিছিয়ে গেছে। আমাদের সবকিছু আছে তবে অগোছালো। আমার কাজ হবে সবকিছু নতুন করে সাজানো।

আগের কমিটির সভাপতি-মহাসচিব গুলজার-খোকন অনেক ভালো কাজ করেছেন। কিন্তু অসমাপ্ত রয়েছে। তাদের সেই অসমাপ্ত কাজগুলোকে সমাপ্ত করতে চান বলে জানিয়েছেন সোহানুর রহমান সোহান।

তিনি বলেন, এর আগের কমিটিও আধুনিক সিনেমা বানানোর ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করেছিলেন। কিন্তু আমাদের টার্গেট প্রতি তিনমাস পরপর ট্রেনিংয়ে ব্যবস্থা করবো। সেখানে নতুন পুরাতন সব পরিচালক থাকবে। পরিচালকদের কাছে চাওয়া থাকবে তারা যেন সিনেমায় নিজেদের সংস্কৃতি প্রধান্য দেন।

বিজ্ঞাপন

নিজের নতুন সিনেমার প্রসঙ্গে সোহানুর রহমান সোহান বলেন, নতুন ছেলে মেয়ে নিয়ে একেবারে রোমান্টিক সিনেমা বানাবো। গল্প তৈরি করে রেঝেছি। ইন্ডাস্ট্রি ডুবন্ত অবস্থায় কেয়ামত থেকে কেয়ামত, স্বজন, আমার ঘর আমার বেহেশত, অনন্ত ভালোবাসা বানিয়েছিলাম। যাদের নিয়ে বানিয়েছিলাম তারাই ইন্ডাস্ট্রি টিকিয়ে রেখেছে। তাই আমি আবার নতুনদের নিয়ে কাজ করবো।

আগেও পর পর দুবার উপমহাসচিব নির্বাচিত হয়েছিলেন বাঁধা, সন্তান আমার অহংকার, জন্ম তোমার জন্যের মতো সফল সিনেমার চিত্রপরিচালক শাহীন সুমন। এবার তিনি মহাসচিব পদে নির্বাচিত হলেন।

শাহীন সুমন মনে করেন, তিনি অযোগ্য। তবে মানুষকে ভালবাসতে জানেন। ভালোবাসার টানেই সবাই যোগ্য মনে করে ভালোবাসেন। তিনি বলেন, এবার নিজের যোগ্যতার প্রমাণ দেব। ভালোবাসার প্রতিদান দেয়া সম্ভব নয়। তবে আমি কাজ করার চেষ্টা করি। সেজন্য সবসময় নির্বাচিত হই।

ভালো সিনেমা বানাতে সমিতির প্রয়োজন হয় কিনা জানতে চাইলে শাহীন সুমন মনে করেন, সমিতির দরকার পড়ে না।

প্রায় অর্ধশত মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমার পরিচালক শাহীন সুমন বলেন, পরিচালক প্রযোজক শিল্পীরা সঠিকভাবে কাজ করলেই ভালো সিনেমা হয়। আমরা এখন আকাশ সংস্কৃতির সঙ্গে লড়াই করছি। এই লড়াইয়ে জয়ী হতে হলে ভালো ছবির বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, মনে প্রাণে বিশ্বাস করি এই লড়াইয়ে আমরা একদিন জিতব। প্রত্যেক পরিচালককে যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে কাজ করতে হবে। নইলে কেউই টিকে থাকতে পারবে না। দর্শকদের পালস বুঝে সিনেমা তৈরি করতে হবে। তাহলে সিনেমা হিট হবেই।

ছবি: নাহিয়ান ইমন