চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কেবল ‘নো’ বল দেখতেই আইপিএলে বাড়তি আম্পায়ার

কেবল নো বল পর্যবেক্ষণের জন্য ম্যাচে বাড়তি একজন আম্পায়ার রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) গভর্নিং বডি। আগামী অর্থাৎ, ২০২০ আসর থেকেই কার্যকর করা হবে এ নিয়ম!

মাঠের দুই আম্পায়ার, থার্ড ও ফোর্থ আম্পায়ারদের থেকে এই নো বল আম্পায়ারের কাজ হবে সম্পূর্ণ আলাদা। প্রযুক্তির সাহায্য নিয়ে বোলারের পা, হাত ও মাঠে ফিল্ডারদের ফিল্ডিং পজিশনের দিকে লক্ষ্য রেখে নো বল জনিত ভুলত্রুটি দূর করাই হবে তার কাজ।

ভারতের সাবেক ব্যাটসম্যান ব্রিজেশ প্যাটেলকে প্রধান করে মঙ্গলবার এক সভায় নো বল আম্পায়ারের ব্যাপারে সিদ্ধান্তে উপনীত হয় আইপিএল গভর্নিং বডি। সেই সভার একজন সদস্য জানিয়েছেন, আইপিএলের আগে পরীক্ষামূলকভাবে আগামী শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া মুস্তাক আলী টি-টুয়েন্টি টুর্নামেন্টে প্রয়োগ করা হবে নিয়ম। পরে ধারাবাহিকভাবে প্রয়োগ করা হবে রঞ্জি ট্রফিতেও।

বিজ্ঞাপন

গত কয়েক বছর ধরেই নো বল আম্পায়ারের জন্য দেনদরবার করে আসছিল আইপিএল দলগুলো। সেই আগুনে ঘি ঢালে চলতি বছর মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স বনাম রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর ম্যাচে এক নো বল বিতর্ক। গুরুত্বপূর্ণ ওই ম্যাচে জিততে শেষ বলে সাত রানের দরকার ছিল বেঙ্গালুরুর। সেই বলে ব্যাটসম্যান শিভমন দুবে মাত্র ১ রান নিলে ম্যাচটা ৫ রানে হেরে যায় বিরাট কোহলির দল।

কিন্তু টিভি রিপ্লেতে দেখা যায় লাসিথ মালিঙ্গার করা বলটি ছিল নো বল। আম্পায়াররা এরপরও নো বল না ডাকায় তা নিয়ে তৈরি হয় বিশাল বিতর্কের। ওই আসরের শুরুতে একই বিতর্ক নিয়ে আম্পায়ারদের সঙ্গে তর্কে জড়িয়েছেন চেন্নাই সুপার কিংস অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনিও। তাই বিতর্কের অবসান ঘটাতে বাড়তি আম্পায়ার ব্যবহারের সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছে দলগুলো।

নো বল নিয়ে বিতর্কের অবসান ঘটাতে এরইমধ্যে থার্ড আম্পায়ারের কাঁধে এই গুরু সিদ্ধান্তের ভার চাপিয়ে দিয়েছে আইসিসি। আইপিএলেও প্রায় একইরকম দায়িত্ব থাকবে নো বল আম্পায়ারের। তবে তার কাজ হবে শুধু বোলারের পায়ের দিকেই নজর রাখা!

শেয়ার করুন: