চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানের হস্তক্ষেপের সুযোগ নেই: রাহুল গান্ধী

জম্মু ও কাশ্মীর ইস্যুকে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় হিসেবে উল্লেখ করে এতে পাকিস্তান বা অন্য দেশের হস্তক্ষেপের কোনো সুযোগ নেই বলে মন্তব্য করেছেন কংগ্রেসের সাবেক সভাপতি রাহুল গান্ধী।

এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন: ‘আমি অনেক বিষয়ে এই সরকারের সাথে একমত নই। তবে, আমি একেবারে স্পষ্ট করে বলতে চাই, কাশ্মীর ভারতের অভ্যন্তরীণ ইস্যু এবং পাকিস্তান বা অন্য কোনো দেশের এতে হস্তক্ষেপ করার কোনো সুযোগ নেই।’

বিজ্ঞাপন

রাহুল গান্ধী আরও বলেন: মূলত পাকিস্তানের প্ররোচনা ও সমর্থনের ফলেই জম্মু ও কাশ্মীরে সহিংসতা চলছে। আর বিশ্বজুড়ে পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদের প্রধান সমর্থক হিসেবে পরিচিত।

কংগ্রেসের কমিউনিকেশন অফিসার রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা এক বিবৃতিতে বলেছেন: কাশ্মীর বিষয়ে জাতিসংঘে পাকিস্তান সরকারের অভিযোগে রাহুল গান্ধীর নাম নেতিবাচকভাবে টেনে আনা হয়েছিল। পাকিস্তান আসলে কাশ্মীর বিষয়ে মিথ্যা এবং ইচ্ছাকৃতভাবে ভুল তথ্য ছড়িয়ে দিচ্ছে।

এর আগে কাশ্মীরে ঢুকতে না দিয়ে শ্রীনগর থেকে দিল্লিতে ফেরত পাঠানো হয় রাহুল গান্ধীকে।

বিজ্ঞাপন

ওই সময় ফ্লাইটেই এক কাশ্মীরি নারী রাহুল গান্ধীকে বলেছেন: ‘আমাদের ছেলেমেয়েদের বাড়ির বাইরে বেরোনোর উপায় নেই। আমার ভাই হার্টের রোগী। দশদিন ডাক্তার দেখাতে যেতে পারেনি। আমরা খুব বিপদে আছি।’

এরপর রাহুল উঠে গিয়ে ওই নারীকে সমবেদনা জানান। সেখানে দাঁড়িয়ে ছিলেন কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদ, আনন্দ শর্মা, কেসি বেনুগোপালসহ অনেকেই। কাশ্মীরী নারীর বক্তব্য শুনে প্রত্যেকেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন।

অন্যদিকে, বুধবার ভারতের জন্য নিজেদের আকাশসীমা পুরোপুরি বন্ধের পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে পাকিস্তান। একই সাথে পাকিস্তানের সড়কপথে আফগানিস্তানের সঙ্গে ভারতের বাণিজ্যের ওপরও নিষেধাজ্ঞার পরিকল্পনা নিয়েছে পাকিস্তানের সরকার।

গত ৫ আগস্ট কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর কাশ্মীর ইস্যুকে কেন্দ্র করেই একে অপরের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ-পাল্টা পদক্ষেপেই ব্যস্ত দুই দেশ।

এমন পরিস্থিতিতে শেষমেশ ভারতের জন্য নিজেদের আকাশপথ পুরোপুরি বন্ধের পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে ইসলামাবাদ।

Bellow Post-Green View