চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কাতারে কূলকিনারা পেল না বাংলাদেশ

কাতারের গ্যালারিতে দখল নিয়েছিলেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। তুলেছিলেন লাল-সবুজের পতাকার ঢেউ। কিন্তু মাঠে বল দখলের আসল কাজটা যাদের, সেই বাংলাদেশের ফুটবলাররা কোনো কূলকিনারাই পেলেন না লড়াইয়ে। মিলেছে বড় ব্যবধানের হার।

দোহায় আব্দুল্লাহ বিন খলিফা স্টেডিয়ামে ২০২২ বিশ্বকাপের স্বাগতিক কাতারের বিপক্ষে ৫-০ গোলে হেরেছে ডেমি ডের শিষ্যরা। জামাল ভুঁইয়ারা ম্যাচে আলো ছড়াতে পারেননি একদমই।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার ২০২২ বিশ্বকাপ ও ২০২৩ এশিয়ান কাপের বাছাইয়ের ‘ই’ গ্রুপের প্রাথমিক পর্বের দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে কাতারের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। ৬ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে থাকল কাতার। ৫ ম্যাচে ১ পয়েন্টে তলানিতে জামালরা।

দুদলের ফুটবল সামর্থ্যে যোজন-যোজন ব্যবধান। জেনেও লড়াইয়ের প্রত্যয়ের আশাবাদ ছিল জামালদের মুখে। সেই আশার পালে হাওয়া দেয়ার মতো খেলার ছিটেফোঁটাও দেখা মেলেনি।

দুই অর্ধেই সমান দাপটে ছড়ি ঘুরিয়েছে স্বাগতিকরা। প্রথমার্ধে ২-০ গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধের নির্ধারিত সময়েও দুই গোল জড়ায় তারা বাংলাদেশের জালে। যোগ করা সময়ে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেয়, তুলে নেয় বড় জয়ের পথে পঞ্চম গোলটি।

বিজ্ঞাপন

স্বাস্থ্যবিধির ব্যাপারে কাতারের কড়াকড়ি এতটাই ছিল যে, এড়িয়ে মাঠে ঢুকতে পারবেন কিনা সেটা নিয়ে শঙ্কায় ছিলেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। কেউ কেউ জানিয়েছিলেন প্রিয় দেশকে সমর্থন জানাতে যেভাবেই হোক শেষপর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাবেন। লড়াইয়ে জয়ী হয় বাংলাদেশি দর্শকরাই।

দোহার আব্দুল্লাহ বিন খলিফা স্টেডিয়ামে স্থানীয়দের ঠেলে লাল-সবুজ পতাকার প্রাধান্যই দেখা গেছে বেশি। করোনা পরিস্থিতির কারণে স্বাস্থ্যবিধির কথা মাথায় রেখে মাত্র ২০ ভাগ টিকেট, অর্থাৎ দুই হাজার টিকিট বিক্রি করেছিল কাতার।

দিন শেষে মাঠে ঢুকতে পেরেছিল ১৮০০ দর্শক। তাদের বেশিরভাগই প্রবাসী বাংলাদেশি। প্রবাসীরা দুশ্চিন্তায় ছিলেন, যদি টিকেট না মেলে! প্রবাসে এসে স্বদেশিদের সমর্থনের ঘাটতিতে কিছুটা মন খারাপের কথা বলেছিলেন বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়রাও।

বিক্রির ১৮০০ টিকেটের প্রায় ১৫০০-ই কিনে নিয়েছিল বাংলাদেশিরা। খালি হাতে আসেননি তারা, সঙ্গে এনেছিলেন দেশের লাল-সবুজ পতাকা। মাঠের ফলে জামাল ভূঁইয়ারা তাদের বড় হতাশই করলেন!