চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কাটারে কাবু অস্ট্রেলিয়া, সিরিজ জিতে বাংলাদেশের ইতিহাস

তিনে তিন! অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইতিহাস গড়ল বাংলাদেশ। অজিদের বিপক্ষে এই প্রথম কোনো সিরিজ জিতল টিম টাইগার্স। টানা তিন টি-টুয়েন্টি জয়ে পাঁচ ম্যাচের সিরিজের ফয়সালা হয়ে গেল দুম্যাচ হাতে রেখেই।

মিরপুরে তৃতীয় টি-টুয়েন্টিতে রোমাঞ্চকর লড়াই শেষে বাংলাদেশ জিতেছে ১০ রানে। ১২৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা অজিরা ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে তোলে ১১৭ রান।

আরও একবার কাটারে জাদু দেখান মোস্তাফিজুর রহমান। দারুণ জমে ওঠা ম্যাচে পার্থক্য গড়ে দেন বাঁহাতি পেসার। ১৯তম ওভারে মাত্র ১ রান দিয়ে জয়ের পথ সহজ করে দেন।

শেষ ওভারে মেহেদীর জন্য ফিজ রাখেন ২২ রান। অফস্পিনারের ওভারে থেকে সফরকারীরা নিতে পারে ১১ রান।

বাংলাদেশ: ১২৭/৯ (২০ ওভার), অস্ট্রেলিয়া: ১১৭/৪ (২০ ওভার)

১৬তম ওভারে মোস্তাফিজ দেন মাত্র ৪ রান। শেষ ৪ ওভারে অজিদের দরকার পড়ে ৩৪ রান। প্রথম বলেই ফিফটি করা মার্শকে ফেরান শরিফুল। ৪৬ বলে ৫১ রান করে যান তিনি ৬টি চার ও একটি ছয়ের সাহায্যে। উইকেট পেলেও শরিফুল নিজের শেষ ওভারে দেন ১১ রান।

প্রথম তিন ওভারে ৮ রান দেয়া মোস্তাফিজ ১৯তম ওভারে দেন ১ রান। কোনো উইকেট না পেলেও ৪ ওভারের কোটা শেষ করেন মাত্র ৯ রান খরচ করে।

বাংলাদেশ দলের বাঁহাতি স্পিনার নাসুম আহমেদ শুরুতেই এনে দেন সাফল্য। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে উইকেট হারানো অস্ট্রেলিয়া পাওয়ার প্লে’র ৬ ওভারে তুলতে পারে মাত্র ২০ রান।

ফিল্ডাররা ছড়িয়ে ছিটিয়ে যেতেই রান তোলার গতি বাড়াতে থাকে অস্ট্রেলিয়া। জুটি ধরে আগাতে থাকে তারা। ভয়ঙ্কর জুটিটি ভাঙেন সাকিব আল হাসান। ইনিংসের চতুর্দশ ওভারের দ্বিতীয় বলে ম্যাকডারমটকে বোল্ড করেন বাঁহাতি স্পিনার। অজি ব্যাটসম্যান করেন ৩৪ বলে ৩৫ রান।

বিজ্ঞাপন

তার আগের ওভারেই আউট হতে পারতেন ম্যাক। কিন্তু শরিফুল ইসলাম ডিপ স্কয়ার লেগে সহজ ক্যাচ ছাড়েন। বোলিংয়ে ছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান। ম্যাকডারমট তখন ৩৩ রানে ব্যাট করছিলেন।

পরের ওভারে তা পুষিয়ে দেন শরিফুল। বোলিংয়ে এসে তুলে নেন ময়েজেস হেনরিক্সের উইকেট। মিড অনে শামীম হোসেনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ২ রানে। টানা দুই ওভারে দুই উইকেট তুলে ম্যাচে ফেরে বাংলাদেশ।

মিরপুরে তৃতীয় টি-টুয়েন্টিতে টস জিতে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশ নির্ধারিত ওভারে ৯ উইকেটে ১২৭ রানে তুলে চ্যালেঞ্জ ছোঁড়ে।

শুরুতে ৩ রানে দুই ওপেনারকে হারানোর পর সাকিব আল হাসানের ব্যাট দিয়েছিল প্রতিরোধের আভাস। ইনিংসটা লম্বা করতে পারেননি টাইগার অলরাউন্ডার। দলীয় পঞ্চাশের আগেই অ্যাডাম জাম্পাকে উইকেট দিয়ে ফিরেছেন সাজঘরে।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজে বেশ ধারাবাহিক সাকিব তৃতীয় টি-টুয়েন্টিতে করেছেন ২৬ রান। ১৭ বলের ইনিংসে চারের মার চারটি। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সঙ্গে তার তৃতীয় উইকেটে জুটিতে এসেছে ৪৪ রান।

বাংলাদেশের সংগ্রহ ১২ ওভারে ৪ উইকেটে ৭৬ রান ছিল এক সময়। সেখান থেকে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ইনিংস টেনে নেন। অধিনায়ক ৪ চারে ৫৩ বলে ৫২ করে যান।

আফিফ হোসেন ফিরে যান ১৩ বলে ১৯ রানে। নুরুল হাসান সোহান ৫ বলে আউট হন ১১ করে। দুজনেই দ্রুত এক রান নিতে যেয়ে রানআউটে কাটা পড়েছেন।

মিরপুরে তৃতীয় ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশের শুরুটা হয় খুবই বাজে। ১ রান করে হ্যাজেলউডের বলে উইকেটরক্ষক ম্যাথু ওয়েডের গ্লাভসে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন নাঈম (১)।

শুরু থেকেই নড়বড়ে থাকা সৌম্য সরকার জাম্পার বলে এলবিডব্লিউ হন। ১১ বল খেলে মাত্র ২ রান করেন বাঁহাতি ওপেনার। তাতে ধীরে ঘোরে রানের চাকা। পাওয়ার প্লে’র ৬ ওভারে মাত্র ২৮ রান তুলতে পারে স্বাগতিকরা।

বোলিংয়ে ইনিংসের শেষ ওভাবে উল্লাসের ক্ষণ আসে অজিদের। অভিষিক্ত নাথান এলিস ইনিংসের শেষ তিন বলে উপহার পান হ্যাটট্রিক। টি-টুয়েন্টিতে অভিষেকে কোনো অজির প্রথম হ্যাটট্রিক কীর্তি এটি।

বিজ্ঞাপন