চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনাভাইরাস: শনাক্তের হার কমলেও শঙ্কা কাটেনি

করোনাভাইরাস শনাক্তের হার গত কয়েকদিন উঠানামা করছে। তবে সংক্রমণের ২৩০তম দিনে নতুন রেকর্ড হয়েছে। এদিন কোভিড-১৯ শনাক্তের হার কমে দাঁড়িয়েছে সর্বনিম্ন ৯ দশমিক ৯৫ শতাংশ।

বিশ্বব্যাপী যখন করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ চলছে, তখন এ খবর আশাব্যঞ্জক। কিন্তু শনাক্তের হার সর্বনিম্ন হলেও শঙ্কা পুরোপুরি কাটেনি। কারণ, সংক্রমণ পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি। এজন্য অসচেতনতাও অনেকটা দায়ী। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে সংক্রমণ অনেকটা নিয়ন্ত্রণে আসবে বলে আমরা আশাবাদী।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এটা অস্বীকার করার উপায় নেই যে, করোনাভাইরাস সারা বিশ্বের কাছেই নতুন। এর ফলে উন্নত বিশ্বের দেশগুলোও হিমশিম খাচ্ছে। সেই হিসাবে বাংলাদেশে সরকার এবং জনসাধারণের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় পরিস্থিতি তেমন খারাপ পর্যায়ের দিকে যায়নি। এই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে সামনের দিকগুলোতেও পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হবে।

তবে করোনা সংক্রমণ কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসার পর শিথিলতা দেখা দিয়েছে। আগের মতো স্বাস্থ্যবিধি মানার বালাইও যেন অনেকের নেই। এতে সার্বিক পরিস্থিতির অবনতি হওয়ার শঙ্কা রয়েছে। তাই এ বিষয়ে আরও কঠোর হওয়ার বিকল্প নেই।

দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ এখনও শুরু হয়নি বলে জনস্বাস্থ্যবিদরা জানিয়েছেন। সামনের শীতে দ্বিতীয় ঢেউ বা সংক্রমণ আরও বাড়ার শঙ্কা করছেন তারা। এ বিষয়েও সংশ্লিষ্টদের পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। নয়তো তখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে জটিলতা হতে পারে। আমরা মনে করি, এখন থেকেই প্রস্তুতি গ্রহণ করলে করোনাভাইরাস মোকাবেলা সহজ হবে। এজন্য যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করতে আমরা সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।