চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এসডিজি বাস্তবায়নেও আশাবাদী প্রধানমন্ত্রী

এসডিজি বাস্তবায়নের জন্য দক্ষিণ এশিয়ার পার্লামেন্টগুলোর রাজনৈতিক ইচ্ছেশক্তির ওপর জোর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দক্ষিণ এশিয়ার স্পিকারদের সম্মেলনের সমাপনিতে তিনি বলেন, এমডিজি অর্জন করে বাংলাদেশ যেমন বিশ্বকে তাক লগিয়ে দিয়েছে তেমনি এসডিজি বাস্তবায়নেও সফল হবে বাংলাদেশ।

রাজধানীতে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনের ওপর দক্ষিণ এশিয়ার স্পিকারদের দু’দিনের প্রথম শীর্ষ সম্মেলনের শেষ দিন। সমাপনীতে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এসডিজি অর্জনের ওপর ‘ঢাকা ঘোষণা’ গ্রহণ করায় ধন্যবাদ জানান এবং পূর্ণ সমর্থনও জানান তিনি।

Advertisement

সম্মেলনে যে সব বিষয়ের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়েছে সে বিষয়েও সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনে অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছে।

তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন স্টকহোল্ডার যেমন নারী-পুরুষ, নাগরিক সমাজ, কমিউনিটি এবং ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ, যুবসমাজ ইত্যাদির সঙ্গে অংশীদারত্ব আলোচনা এবং সহযোগিতার মাধ্যমে এসডিজি বাস্তবায়নের জন্য আমি দক্ষিণ এশিয়ার পার্লামেন্টগুলোর মধ্যে রাজনৈতিক ইচ্ছেশক্তি গড়ে তোলার উপর জোড় দিতে চাই। আমরা এমডিজি বাস্তবায়নের মাধ্যমে বিশ্বকে যেমন তাক লাগিয়ে দিতে সক্ষম হয়েছি ইনশাল্লাহ এসডিজি বাস্তবায়নের ক্ষেত্রেও আমরা এই সাফল্য অর্জন করতে পারবো বলে বিশ্বাস করি।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, উন্নয়ন এবং সুস্বাস্থ্যের মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক বিদ্যমান। তামাকজনিত এবং অসংক্রামক রোগ কমাতে এসডিজি ৩ অনুয়ায়ী সুস্থ জীবনযাপন নিশ্চিত করতে আরও তৎপর হওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর।

তিনি বলেন, আমার সরকার জনস্বাস্থ্যকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়েছে। আমরা আশা করি ২০৪০ সালের পূর্বেই বাংলাদেশ থেকে তামাকের ব্যবহার নির্মূল করা সম্ভব হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করতে কাজ করছে সরকার।