চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এফডিসির অভ্যন্তরে কোরবানি দেয়া যাবে না

এফডিসিতে অসচ্ছল শিল্পীদের কথা বিবেচনা করে নায়করাজ রাজ্জাক, মান্নার পক্ষ গরু কোরবানি দেয়ার রীতি বেশ পুরোনো। শিল্পী সমিতির উদ্যোগে দেয়া হয় কোরবানি। নিজ উদ্যোগে ২০১৬ সাল থেকে নিয়মিত একাধিক গরু কোরবানি দিয়ে আসছিলেন চিত্রনায়িকা পরীমনিও।

কিন্তু এবার এফডিসির অভ্যন্তরে কোরবানি দেয়া যাবে না বলে কঠোরভাবে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে এফডিসি কর্তৃপক্ষ।

রবিবার দুপুরে সরেজমিনে দেখা যায়, বিভিন্ন শুটিং ফ্লোরের দেয়াল, প্রশাসনিক ভবন ও ক্যান্টিন চত্বরে নোটিশ হিসেবে লিখে দেয়া এফডিসির অভ্যন্তরে কোরবানি দেয়া যাবে না।

এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে এফডিসি কর্তৃপক্ষ। প্রতিষ্ঠানটির সহকারী এডমিন আমিনুর করিম চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, সাতদিন আগে এফডিসি কর্তৃপক্ষই অভ্যন্তরে কোরবানি না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

তিনি জানান, কোরবানি দিলে একাধিক স্থানে নোংরা আবর্জনা হয়ে যায়। দুর্গন্ধ ছড়ায়। এ জন্য কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নিয়েছে যাতে এফডিসির অভ্যন্তরে কোরবানি দেয়া না হয়। কোরবানির পশু প্রবেশ না করে।

বিজ্ঞাপন

জানা গেছে এবার ৬ টি গরু কোরবানি দেয়ার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছেন পরীমনি। এছাড়া পরিচালক সমিতি ও শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকেও গরু কোরবানি দেয়ার কথা শোনা যাচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে এফডিসির সহকারী এডমিন বলেন, যারা কোরবানি দিতে চান, তারা এফডিসি কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানাতে পারবেন। কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে।

গত কয়েক বছর ধরে প্রতি ঈদ-উল-আযহায় শিল্পী সমিতির উদ্যোগে কোরবানি দেয়া হয়েছে। যা দেখভাল করেন শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান। এফডিসি কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্তে তিনি জানান, এফডিসি কেপিআই ভুক্ত এলাকা। কর্তৃপক্ষ এমন সিদ্ধান্ত নিতেই পারেন। যেহেতু এবছর নিষেধাজ্ঞা এসেছে, তাই আমরা এফডিসির বাইরে কোরবানি দিবো।

এদিকে পরিচালক সমিতির সচিব অপূর্ব রানা জানান, শিল্পী সমিতি ও পরিচালক সমিতি মিলে এবছর গরু কোরবানি দিবে। কিন্তু এফডিসিতে নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারটি তিনি অবগত।

এ প্রসঙ্গে অপূর্ব রানা বলেন, পরিচালক সমিতি ও শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে এফডিসি বরাবর আবেদন জানানো হবে, যাতে এফডিসিতেই কোরবানি দেয়ার অনুমতি পাওয়া যায়।

বিজ্ঞাপন