চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এফএমসিজি খাতে বিজ্ঞাপনদাতাদের জন্য রয়েছে যুগান্তকারী সম্ভাবনা

কোভিড-১৯-এর ফলে সমগ্র বিশ্বে ডিজিটালাইজেশন পাঁচ বছর এগিয়ে নিয়েছে।

মেকিঞ্জি রিসার্চ-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী আগামী তিন থেকে দশ বছরের মধ্যে সুপার মার্কেট অথবা যেকোনো মার্কেটে শপাররা কেনাকাটা করতে নিরাপদ বোধ করবেনা।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

ই-মার্কেটার প্রতিবেদন অনুসারে ২০২০ সালের দ্বিতীয় কোয়ার্টারে এফএমসিজি/ সিপিজি খাতে ডিজিটাল বিজ্ঞাপনে ব্যয় ৫৩% বৃদ্ধি পেয়েছে।

বিজ্ঞাপন

২০২০ সালে যুক্তরাজ্যের মোট ডিজিটাল বিজ্ঞাপন ব্যয়ের ২০% খরচ করে প্রথম স্থানে থাকে রিটেইল খাত এবং ১৩.৫% খরচ করে এফএমসিজি / সিপিজি খাত দ্বিতীয় স্থানে থাকে।

২০২০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে এইচটিটিপুল যেসকল ইন্ডাস্ট্রি খাতে সেবা দিয়ে থাকে, তার মধ্যে সিপিজি সব ডিজিটাল বিজ্ঞাপন ব্যয়ের মধ্যে ১৪.৪% ব্যয় করে তৃতীয় স্থান অর্জন করে ।

এইচটিটিপুল ক্রমবর্ধমান বাজারের সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে দেশীয় এফএমসিজি/সিপিজি ব্র্যান্ডগুলো কিভাবে ফেসবুক, টুইটার এবং স্ন্যাপচ্যাট-এর বিজ্ঞাপন প্লাটফর্ম ব্যবহার করে আয় করতে পারে সে বিষয়ে এইটিটিপুলের বিশেষজ্ঞ দল বিশ্লেষণ প্রদান করেছে এবং তারা ধারণা করছে ২০২৫ সালে এই বাজারের আকার হবে ১৫,৩৬১.৮ বিলিয়ন ডলার।