চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এক যুগ্ম কমিশনারের বরখাস্ত চেয়ে এনবিআরে বিক্ষোভ

একজন রাজস্ব কর্মকর্তাকে মারধর, হেনস্থা ও লাঞ্ছিত করার অভিযোগে পানগাঁও কাস্টম হাউসের যুগ্ম কমিশনার মো. লুৎফুল কবিরকে বরখাস্তের দাবিতে বিক্ষোভ করেছে রাজস্ব কর্মকর্তারা।

সোমবার জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সামনে বিক্ষোভ করেছেন রাজস্ব কর্মকর্তাদের বিভিন্ন সংগঠন। এর মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ কাস্টমস ভ্যাট অ্যান্ড এক্সিকিউটিভ অ্যাসোসিয়েশন (বাকাএভ), ঢাকা কাস্টমস ভ্যাট অ্যান্ড এক্সিকিউটিভ অ্যাসোসিয়েশন (ঢাকাএভ), চট্টগ্রাম কাস্টমস ভ্যাট অ্যান্ড এক্সিকিউটিভ অ্যাসোসিয়েশন (চকাএভ), রংপুর কাস্টমস ভ্যাট অ্যান্ড এক্সিকিউটিভ অ্যাসোসিয়েশন (রকাএভ) ও খুলনা কাস্টমস ভ্যাট অ্যান্ড এক্সিকিউটিভ অ্যাসোসিয়েশন (খুকাএভ)।

বিজ্ঞাপন

এর আগে গতকাল রোববার তারা একই দাবিতে এনবিআরের কাছে ওই যুগ্ম কমিশনারের বিরুদ্ধে অভিযোগ পত্র দিয়েছেন।

ওই অভিযোগ পত্রে বলা হয়, গত ২৫ নভেম্বর বুধবার বেলা ২টায় ওই হাউসের শুল্কায়ন গ্রুপ-৪ এবং কায়িক পরীক্ষণ গ্রুপ-৩-এর সংশ্লিষ্ট রাজস্ব কর্মকর্তা ও সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তাদের ডেকে তার কক্ষে নিয়ে একটি নথিতে রাজস্ব কর্মকর্তা ভবেশ চন্দ্র বিশ্বাসকে দিয়ে জোর করে সই নেয়ার চেষ্টা করেন। ভবেশ চন্দ্র বিশ্বাস সই করতে অপারগতা প্রকাশ করলে যুগ্ম কমিশনার প্রথমে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেন। একপর্যায়ে ওই রাজস্ব কর্মকর্তাকে মারধর করেন, যা শিষ্টাচারবহির্ভূত এবং সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা, ২০১৮ ও সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮-এর সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

বিক্ষোভকারীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, এই ঘটনার পর থেকে সারাদেশের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা ও রাজস্ব কর্মকর্তাদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

বিজ্ঞাপন

সূত্র জানায়, কোনো এক ফাইলের বিষয়ে অনৈতিক দাবি ছিল যুগ্ম কমিশনার লুৎফুল কবিরের। কিন্তু ওই রাজস্ব কর্মকর্তা সেটির বিরোধিতা করায় তাকে ডেকে নিয়ে মারধর করা হয়।

গতকাল রোববার এনবিআরের কাছে অভিযুক্ত যুগ্ম কমিশনারের বিরুদ্ধে অভিযোগ পত্র জমা দেন রাজস্ব কর্মকর্তারা

বিক্ষোভকারীরা বলেন, অভিযুক্ত যুগ্ম কমিশনার শুধু কাস্টম হাউস পানগাঁও নয় এর আগে যেসব কর্মস্থলে কর্মরত ছিলেন সেখানেও কর্মকর্তা-কর্মচারী এমনকি স্টেক হোল্ডারদের সঙ্গেও খারাপ ব্যবহার করেছেন। নানাবিধ অভিযোগে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার কথা থাকলেও অদৃশ্য কারণে সেসব অভিযোগের তদন্ত আলোর মুখ দেখেনি।

তারা বলেন, ঘটনার পাঁচদিন অতিবাহিত হলেও এখনও যুগ্ম কমিশনারকে বরখাস্ত করা হয়নি। তাকে বরখাস্ত করা না হলে সাময়িক কর্মবিরতিসহ কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।

বিক্ষোভে আরও উপস্থিত ছিলেন বাকাএভ এর সদস্য সচিব মো. মুজিবর রহমান, বাকাএভ প্রতিনিধি পীযূষ কান্তি বিশ্বাস, ঢাকাএভ এর সাধারণ সম্পাদক মো. ফারুক আহমেদসহ সর্বস্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীরা।

তবে এ বিষয়ে এনবিআরের কর্মকর্তারা কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।