চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঈর্ষান্বিত প্রতিবেশীরা খুন করতে চাইত মেসিকে!

হরমোনের সমস্যায় ছোটবেলায় আকারে খুব একটা না বাড়লেও প্রতিভার প্রকাশে কমতি ছিল না লিওনেল মেসির মাঝে। শৈশবেই বল পায়ে সবাইকে কুপোকাত করে দেয়া মেসি নাকি প্রতিবেশী কিশোরদের কাছে ছিলেন গাত্রদাহের কারণ, এমন জানিয়েছেন তার চাচাতো ভাই ও ফ্ল্যামেঙ্গোর সাবেক ফুটবলার ম্যাক্সি বিয়ানুচ্চি। কেউ কেউ নাকি খেপে গিয়ে ছোট্ট মেসিকে খুনই করতে চাইতো বলছেন তিনি।

ছোট শরীর নিয়েও বড়দের সঙ্গে তাল মিলিয়ে খেলতে পারতেন মেসি, ‘মহল্লায় ও(মেসি) যখন আমাদের সঙ্গে খেলত, আমরা সবাই ছিলাম ওর থেকে বড়। সবাই তখন বলত, ও পাগল, ওকে সরাও, নইলে কিন্তু খুন করে ফেলবো। সবাই চাইতো ওকে আঘাত করতে। কিন্তু ও এতেই মানিয়ে নিয়েছিল।’

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

‘ওর বয়স যখন আট কি নয়, একদিন শনিবারে সকালে উঠে ওকে খেলতে দেখি। অসাধারণ খেলছিল। আমার বিশ্বাসই হচ্ছিল না।’

শৈশবে নিউ ওয়েলস বয়েজের হয়ে খেলার পর ২০০১ সালে বার্সেলোনা পাড়ি জমান মেসি। এরপর থেকে অনেক আর্জেন্টাইনের বিশ্বাস, স্বদেশে ফিরে একই ক্লাবের হয়েই একদিন ক্যারিয়ার শেষ করবেন মেসি।

বিয়ানুচ্চিও চান তার ভাই শৈশবের ক্লাবে ফিরে আসুন, তবে নিরাপত্তার বিষয়টি জোরদার হলে তবেই মেসি ফিরবেন বলে জানিয়েছেন তিনি, ‘লিওর আর্জেন্টিনার প্রতি কী পরিমাণ দরদ সেটা মানুষ বুঝবে না। যদি নিরাপত্তা নিয়ে কোনো সমস্যা না থেকে থাকে তবে মেসি ফিরবেই, এতে কোনো সন্দেহ নেই। এই একটা বিষয়ই ওর ফেরায় বাধা হয়ে দাঁড়াবে।’