চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইয়াসমিন ট্র্যাজেডি দিবস আজ

ইয়াসমিন ট্রাজেডি দিবস আজ। ২২ বছর আগে এই দিনে দিনাজপুরে পুলিশি হেফাজতে ধর্ষণ ও হত্যার শিকার হয়েছিল কিশোরী ইয়াসমিন।

১৯৯৫ সালের এই দিনে দিনাজপুর শহরের দশ মাইল মোড়ে বাড়ি ফেরার জন্য অপেক্ষা করছিলেন ইয়াসমিন। ফজরের নামাজের সময় মুসল্লীরা নিরাপদে যেতে তাকে একটি পুলিশ ভ্যানে তুলে দেয়।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু কিছু দূর যাবার পর ব্র্যাক স্কুলের সামনে পুলিশের ৩ সদস্য ইয়াসমিনকে ধর্ষণ করে চলন্ত ভ্যান থেকে ছুড়ে ফেলে দিলে তার মৃত্যু হয়। পুলিশি হেফাজতে তরুনী ইয়াসমিন ধর্ষণ ও হত্যার বিচার চাইতে গিয়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর গুলিতে নিহত হয় ৩ জন। আহত হয় শতাধিক মানুষ।

বিজ্ঞাপন

এই ঘটনায় রংপুর বিশেষ আদালত ইয়াসমিন হত্যা মামলায় দোষী ৩ পুলিশ সদস্যেকে মৃত্যুদণ্ড দেয়। এরপর থেকে দিনটিকে নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস হিসেবে পালন করে আসছে বিভিন্ন সংগঠন।

দণ্ডপ্রাপ্ত এই আসামিদের ফাঁসির রায় ২০০৪ সালের সেপ্টেম্বর মাসে কার্যকর করা হয়। মামলার অন্যতম আসামী এএসআই মইনুল হক ও কনস্টেবল আব্দুস সাত্তার কে রংপুর জেলা কারাগারের অভ্যন্তরে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে ২০০৪-এর ১ সেপ্টেম্বর মধ্যরাত ১২টা ১ মিনিটে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয় । অপর আসামি পিকআপ ভ্যানচালক অমৃত লাল বর্মণ কে রংপুর জেলা কারাগারে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয় একই বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর মধ্যরাত ১২টা ১ মিনিটে।

ইয়াসমিনের পরিবার এবং বিভিন্ন সংগঠন এ উপলক্ষে দোয়া মাহফিল, কবর জিয়ারত ও আলোচনা সভার আয়োজন করেছে।

Bellow Post-Green View