চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইরফানের অভিনয় দেখেই সিনেমায় এসেছিলেন ফাহাদ

‘ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে ক্যারিয়ার গড়ার অনুপ্রেরণা আমি ইরফান খানের কাছ থেকেই পেয়েছিলাম, যার ফলে  আমি সারা জীবন তার কাছে ঋণী থাকবো’- সদ্য প্রয়াত বলিউড অভিনেতা ইরফান খানকে নিয়ে এভাবেই স্মৃতিচারণ করেন মালায়ালাম ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির জনপ্রিয় অভিনেতা ফাহাদ ফাসিল।

তিনি জানান, আমারেকিাতে যখন ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে পড়াশোনা করতে যান তখন সেখানে এক পাকিস্তানি দোকানদারকে হিন্দি সিনেমার ডিভিডি ভাড়া দেয়ার ব্যাপারে উৎসাহিত করেন। সত্যি সত্যিই সেই দোকানদার হিন্দি সিনেমার ডিভিডি ভাড়া দিতে শুরু করে দিয়েছিলো। একদিন তার এখান থেকে ‘ইউ হোতা তো ক্যায়া হোতা’ নামের একটি হিন্দি সিনেমা মুক্তি পেয়েছিল। ছবিটির পরিচালনা করেছিলেন নাসিরউদ্দিন শাহ। সিনেমাটি দেখার জন্য সেই ডিভিডি ভাড়া করেছিলেন ফাহাদ। এবং সেই সিনেমাতেই ইরফান খানের প্রথম দর্শন হয় ফাহাদের।

বিজ্ঞাপন

তিনি জানান, ছবিটিতে ইরফান খানের অভিনয় তাকে মুগ্ধ করেছিলো। সিনেমার গল্পে নয়, ইরফানের অভিনয় দেখতেই বেশি উৎসুক ছিলেন তিনি। শেষমেশ তার অভিনয়ে অনুপ্রাণিত হয়েই আমেরিকার ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ ছেড়ে ভারতীয় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে মনোনিবেশ করেছিলেন ফাহাদ। আজ তিনি মালায়ালাম ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম সেরা একজন অভিনেতা।

বিজ্ঞাপন

তবে ফাহাদ জানান, তার জীবনে আক্ষেপ একটাই যে, করোনার এই মহামারীর কালে ইরফান খানের সাথে তার শেষ সাক্ষাতটা আর হলো না।

গেল মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) মারা যান ইরফান খান। বলিউডে তিন দশক ধরে কাজ করছেন তিনি। এরমধ্যে ৫০ এর বেশি হিন্দি ছবি, আঞ্চলিক ছবি ও হলিউডের বেশ কিছু ছবিতে কাজ করেছেন। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী এই অভিনেতা চারবার ফিল্ম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ড জিতে নেন। সিনেমায় সার্বিক অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১১ সালে ইরফান খানকে পদ্মশ্রীও দেওয়া হয়।