চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইথিওপিয়ায় ২ বিমানবন্দরে রকেট হামলা

ইথিওপিয়ার তিগ্রাই অঞ্চলের পাশে আমহারা রাজ্যের দুটি বিমানবন্দরে রকেট হামলা হয়েছে বলে দাবি করেছে দেশটির সরকার। ফলে স্থানীয় বাহিনী ‘তিগ্রাই পিপল‘স লিবারেশন ফ্রন্ট’ (টিপিএলএফ) সঙ্গে কেন্দ্রীয় বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষ আরও মারাত্মক আকার ধারন করল বলে জানিয়েছে সংবাদ মাধ্যম বিবিসি।

এই বিমানবন্দর দুটির অবস্থান তিগ্রাই রাজ্যের কাছাকাছি। আমহারার প্রতিবেশী তিগ্রাইতে প্রায় ১১ দিন ধরে স্থানীয় বাহিনীগুলোর সঙ্গে কেন্দ্রীয় বাহিনীর লড়াই চলে আসছে। এরমধ্যেই শুক্রবার রাতে বিমানবন্দর দুটিতে রকেট হামলা চালানো হয় বলে কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

টিপিএলএফ এর নিয়ন্ত্রিত তিগ্রাই থেকে আমহারার দুটি অঞ্চল দখল নিতেই এ হামলা চালানো হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। একটি রকেট আমহারার গনদার বিমানবন্দরে আঘাত হানে এবং এতে বিমানবন্দরটি আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়, প্রায় একই সময় আরেকটি রকেট আমহারার বাহির দার বিমানবন্দরের সামনে আঘাত হানে।

এসব হামলার জন্য তিগ্রাইয়ের ক্ষমতাসীন দল তিগ্রাই পিপলস লিবারেশন ফ্রন্টকে (টিপিএলএফ) দায়ী করেছে সরকার। তবে এ হামলার দায় অস্বীকার করেছে টিপিএলএফ।

বিজ্ঞাপন

এদিকে গত সপ্তাহে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত শতাধিক বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল জানিয়েছে, গত ৯ নভেম্বর মে কাদেরা শহরে অন্তত শতাধিক মানুষকে হত্যা করা হয়।

সরকারের ইমার্জেন্সি টাস্ক ফোর্স টুইটারে লিখেছে, “টিপিএলএফ জান্তা তাদের অস্ত্রাগারের সর্বশেষ অস্ত্র ব্যবহার করছে।”

রয়টার্স জানিয়েছে, স্থানীয় বাহিনীগুলো কেন্দ্রীয় সেনাদের আক্রমণ করেছে, এমন অভিযোগ তুলে তাদের বিরুদ্ধে আক্রমণ পরিচালনার জন্য প্রায় দুই সপ্তাহ আগে তিগ্রাইতে জাতীয় প্রতিরক্ষা বাহিনী পাঠান ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ। তারপর থেকে তিগ্রাইতে শুরু হওয়া লড়াইয়ে কয়েকশত লোক নিহত হয়েছে।

এ লড়াই আফ্রিকা মহাদেশের দ্বিতীয় জনবহুল দেশ ইথিওপিয়ার অন্যান্য অংশে ছড়িয়ে পড়ে ‘আফ্রিকার শিং’ হিসেবে পরিচিত পূর্ব আফ্রিকার এ অঞ্চলটিকে অস্থিতিশীল করে তুলতে পারে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ ও আফ্রিকান ইউনিয়ন।

শুক্রবার জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা জানিয়েছে, যুদ্ধের কারণে ওই অঞ্চলের ১৪ হাজার ৫০০ বাসিন্দা পালিয়ে প্রতিবেশী সুদানে আশ্রয় নিয়েছে। ইথিওপিয়ায় যুদ্ধ কবলিত এলাকায় আটকে পড়েছে শতাধিক বাংলাদেশি।