চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আর্চারই ভোগালেন, স্মিথ হলেন লেবুশেন

ক্যারিবীয় পেসে নড়বড়ে ভারত

একইদিনে ক্রিকেট বিশ্বজুড়ে টেস্ট খেলার ধুম। বৃহস্পতিবার তিন দেশে সাদা পোশাকের খেলায় ব্যস্ত হয় ছয় টেস্ট খেলুড়ে দেশ। ভিন্ন দেশে ভিন্ন সময়ে শুরু হলেও তিন ম্যাচে মিল একই। প্রতি খেলায় কম-বেশি হানা দিয়েছে বৈরি আবহাওয়া! এর মাঝেই পেসারদের দাপট দেখা গেছে। যার মধ্যে অ্যাশেজে ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করা ইংল্যান্ডের জফরা আর্চার সেরা।

দিনের শুরুটা হয়েছে শ্রীলঙ্কা-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ দিয়ে। দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথমটি স্বাগতিকরা জিতে নেয়ায় সিরিজ বাঁচাতে কলম্বো টেস্ট খুবই গুরুত্বপূর্ণ সফরকারীদের জন্য। কিন্তু কিউদের শুরু থেকেই হতাশ করেছে আবহাওয়া। বৃষ্টির কারণে প্রথম সেশনে কোনো খেলাই হয়নি।

বিজ্ঞাপন

পরের সেশনে টস জিতে লঙ্কানরা ব্যাট করলেও খুব বেশি সুবিধা করে উঠতে পারেনি। বৃষ্টির পর আলোকস্বল্পতায় খেলা বন্ধ হওয়ার আগে ৩৬.৩ ওভার খেলেছে স্বাগতিকরা। ২ উইকেট হারিয়ে রান তুলেছে ৮৫। ৪৯ নিয়ে ওপেনার ও অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে শুরু করবেন দ্বিতীয় দিন। তার সঙ্গী অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ রানের খাতা খুলতেই পারেননি।

নিউজিল্যান্ডের মতো ইংল্যান্ডের কাছে সমান গুরুত্বপূর্ণ হেডিংলি টেস্ট। অ্যাশেজের আগের দুই টেস্টের প্রথমটি অস্ট্রেলিয়া জিতে নেয়ায় সিরিজে ফিরতে তৃতীয় টেস্টে জয় খুবই দরকার ইংলিশদের। এমন গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের প্রথমদিনের শুরুটা হয়েছে ভালো-খারাপের মাঝামাঝি।

টস জিতলেও শুরুতে ব্যাটিংয়ে নামতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। বিঘ্ন ঘটিয়েছে বৃষ্টি। সেই বাধা কাটিয়ে ব্যাটিংয়ে নামতেই ২৫ রানের মধ্যে সাজঘরে ফিরেছেন ওপেনার মার্কাস হ্যারিস ও উসমান খাজা।

ধাক্কা কাটিয়ে দলকে লাইনে ফেরান ডেভিড ওয়ার্নার ও স্টিভেন স্মিথের বিকল্প হিসেবে দলে জায়গা পাওয়া মার্নাস লেবুশেন। এজবাস্টন ও লর্ডস টেস্টে ভীষণরকম ব্যর্থ ওয়ার্নার এই ম্যাচে ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন ফর্মে ফেরার। একবছর নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরার পর পেয়েছেন প্রথম টেস্ট ফিফটি।

বিজ্ঞাপন

উইকেটের পেছনে জনি বেয়ারস্টোর ক্যাচ বানিয়ে ওয়ার্নারকে (৬১) ফিরিয়ে ১১১ রানের জুটি ভাঙেন জফরা আর্চার। হ্যারিসকেও একইভাবে ফিরিয়েছেন ইংলিশ পেসার। ৯৪ বলে ওয়ার্নার যখন ফিরেছেন অজিদের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ১৩৬। এর দুই রান বাদে ট্রাভিস হেডকে রানের খাতা খোলার আগেই বোল্ড করে ফেরান স্টুয়ার্ট ব্রড।

উইকেটে আসা-যাওয়ার মিছিল চলেছে পরের পুরোটা সময়। দিনের খেলা হয়েছে কেবল ৫২.১ ওভার। অজিরা তাতে অলআউট ১৭৯ রানে। আগের দুই টেস্টে বিপর্যয়ে স্মিথ ছিলেন চালিকাশক্তি, এদিন স্মিথ হয়ে ওঠেন লেবুশেন। করেন ইনিংস সর্বোচ্চ ৭৪।

বিপরীতে ঝড় তোলেন আর্চার। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টেস্টেই করেছেন অসাধারণ বোলিং। মাত্র ১৭.১ ওভার বল করে ৪৫ রানে জমা করেছেন ৬ উইকেট। ব্রডের দখলে গেছে ২টি। বাকি দুটি স্টোকস ও ওকসের।

অ্যান্টিগায় সেখানে ওয়েস্ট ইন্ডিজ-ভারত টেস্ট ঠিকঠাক মতো এগোলেও ম্যাচের আগে একঝলক হানা দিয়েছে বৃষ্টি। পরে ভেজা মাঠে খেলতে নামতে দেরি। নেমে ভালোই বিপদে পড়ে ভারত। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামার পর ক্যারিবীয় পেসারদের দাপটে চোখে সর্ষে ফুল দেখেছেন সফরকারী টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা।

২৫ রান তুলতেই একে একে ফিরেছেন মায়াঙ্ক আগরেয়াল (৫), চেতেশ্বর পূজারা (২) ও অধিনায়ক বিরাট কোহলি (৯)।

সেই ধাক্কা সামলে ওঠার চেষ্টা করেছেন ওপেনার লোকেশ রাহুল ও আজিঙ্কা রাহানে। দুজনের ৮২ রানের জুটিতে ভারত ৬৮.৫ ওভারে ৬ উইকেটে ২০৩ রানে প্রথমদিন শেষ করে।

রাহুল ফিরেছেন ৪৪ রানে। রাহানের ব্যাটে এসেছে ৮১ রান। বিহারি পরে ৩২ করে ফিরে গেছেন। পান্ট ২০ ও জাদেজা ২ রানে দ্বিতীয়দিনে সংগ্রহ বাড়াতে নামবেন। ক্যারিবীয়দের হয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন পেসার কেমার রোচ, ২টি গেছে আরেক পেসার গ্যাব্রিয়েলের দখলে।

Bellow Post-Green View