চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘আমরা সেমিফাইনালে চোখ রাখছি’

রশিদ খান ও মুজিব-উর রহমানের মতো তরুণদের উত্থান বিশ্বকাপে আফগানিস্তানের প্রত্যাশা বাড়াচ্ছে। বিশ্বকাপে কতদূর যাওয়ার প্রত্যাশা দলটির? আফগান প্রধান নির্বাচক দৌলত খান আহমদজাই বলেছেন, সেমিফাইনালকে টার্গেট করেছেন তারা।

দুই তরুণের ওপর অনেক নির্ভরতা থাকলেও আফগানিস্তান দলে কিন্তু অভিজ্ঞতারও কমতি নেই। তাদের সবচেয়ে বড় ভরসার জায়গা বোলিং। সেখানে বাড়তি শক্তি হিসেবে যুক্ত হয়েছেন পেসার হামিদ হাসান। ৩১ বছরের এ পেসার যদিও শেষ ওয়ানডে খেলেছেন ২০১৬তে। ইনজুরি কাটিয়ে দলে সুযোগ করে নিতে পারায় আত্মবিশ্বাসী তিনি।

বিজ্ঞাপন

বিশ্বকাপে অংশ নেবে ১০টি দল। আইসিসির সর্বশেষ প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে সবার নিচে আছে আফগানিস্তান। তবে র‌্যাঙ্কিং যাই হোক, বড় দলগুলোকে আপসেট করার অভ্যাস তাদের আছে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের মতো একসময়ের পরাশক্তি সঙ্গে খেলেই বিশ্বকাপে জায়গা করে নিয়েছে আফগানিস্তান। এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কাকে হারানোর পর ভারত-পাকিস্তানের সঙ্গে লড়াই করেছে তারা।

বিজ্ঞাপন

এই বিষয়গুলোকেই বড় করে দেখছেন আহমদজাই। আফগান প্রধান নির্বাচকের ভাষায়, ‘২০১৫তে রশিদ বা মুজিব-উর ছিল না। তারা থাকায় এবার আমরা সেমিফাইনালকে লক্ষ্য করছি। আমাদের দলে যে সমন্বয় আছে, তাতে কয়েকটি দলকে তো আমার বিস্মিত করতেই পারি।’

দলের বোলিং শক্তি নিয়ে বলতে গিয়ে আহমদজাই’র মন্তব্য ‘হামিদ হাসান ফিরে আসায় বোলিং আক্রমণে শক্তি বাড়বে। তিনি আফগানিস্তানের একজন বড় মাপের ফাস্ট বোলার, দৌলত জাদরানের সঙ্গে বোলিং আক্রমণে ভালো নেতৃত্বই দেবেন।’

বিশ্বকাপ দল ঘোষণা আগে বিস্ময়কর এক সিদ্ধান্ত নেয় আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড-এসিসি। যার নেতৃত্বে নিজেদের ইতিহাসে প্রথম টেস্ট ম্যাচ জেতে, সেই আসগর আফগানকে পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হয়। তার জায়গায় বিশ্বকাপ নেতৃত্বের ভার দেয়া হয় গুলবাদিন নায়েবকে।

বিশ্বকাপ প্রস্তুতি নিয়ে বেশ সন্তুষ্টটি প্রকাশ করেছেন আহমদজাই। বিশ্বকাপ শুরুর আগে স্কটল্যান্ড ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দুটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলবে আফগানিস্তান। তারপর ১ জুন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে বিশ্বকাপ মিশন।

Bellow Post-Green View