চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অ্যাসাঞ্জকে আটক রাখতে সুইডেনের আবেদন

ধর্ষণ মামলায় উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে আটক রাখতে আবেদন করেছেন সুইডেনের পাবলিক প্রসিকিউশনের ডেপুটি ডিরেক্টর ইভা-মেরি পারসন।

অ্যাসাঞ্জকে আটকে রাখতে এরই মধ্যে উপসালা ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে আবেদন জানিয়েন তিনি  ।

বিজ্ঞাপন

সোমবার অ্যাসাঞ্জকে ইউরোপিয়ান গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করতে এ আবেদন জানানো হয়।

এ আবেদন মঞ্জুর হলে জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাজ্য থেকে হস্তান্তরে এটাই হবে প্রথম পদক্ষেপ।  যেখানে জামিন নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগে জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ ৫০ সপ্তাহের কারাভোগ করছেন।

বিজ্ঞাপন

তার বিরুদ্ধে ২০১০ সালে করা ধর্ষণ মামলাটি নির্যাতনের শিকার ওই নারীর আইনজীবীর অনুরোধে এ মাসের শুরুতে পুনরায় তদন্ত করার ঘোষণা দেয় সুইডেন প্রশাসন।

দীর্ঘদিন ধরে যুক্তরাজ্যের ইকুয়েডর দূতাবাসে অ্যাসাঞ্জ আশ্রিত থাকার ফলে মামলাটি আর এগিয়ে নেওয়া সম্ভব হবে না মনে করে দুই বছর আগে সেটি বাদ দেওয়া হয়েছিল।

ধর্ষণের অভিযোগে এটির পুনঃতদন্ত শুরু হতে পারে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

সাত বছর ধরে ইকুয়েডর দূতাবাসে আশ্রয়ে থাকার পর গত এপ্রিলে অ্যাসাঞ্জের রাজনৈতিক আশ্রয় প্রত্যাহার করে তাকে ব্রিটিশ পুলিশের হাতে তুলে দেয় ইকুয়েডর।

অন্যদিকে অ্যাসাঞ্জের আইনজীবীদের আশঙ্কা, সুইডেনে গেলে তাকে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে তুলে দেওয়া হতে পারে।

২০১০ সালে কয়েক লাখ মার্কিন গোপন নথি ফাঁস করে উইকিলিকস হইচই ফেলে দেয় বিশ্বজুড়ে। তখন থেকেই বিশ্বব্যাপী আলোচনায় উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ। ওই বছরেই যৌন হয়রানির অভিযোগে সুইডেনে অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে মামলা হয়।

Bellow Post-Green View