চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অভিসংশন শুনানিতে যাবেন না ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে বুধবারের অভিসংশন বিষয়ক শুনানিতে তিনি বা তার আইনজীবীরা অংশ নেবেন না বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউজ।

মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের জুডিশিয়ারি কমিটি বরাবর লেখা চিঠিতে এ বিষয়ে জানিয়েছেন হোয়াইট হাউজ কাউন্সেল প্যাট চিপোলোনে।

বিজ্ঞাপন

চিঠিতে তিনি বলেন: এই শুনানিতে প্রেসিডেন্ট ‘ন্যায্যভাবে’ অংশগ্রহণের সুযোগ পাবেন, এমনটা আশা করা যাচ্ছে না।

পলিটিকো’তে প্রকাশিত ওই চিঠিতে অভিযোগ করা হয়েছে, এ তদন্তের বিষয়ে হাউজ কমিটিতে যথাযথ প্রক্রিয়া এবং মৌলিক ন্যায্যতা সম্পূর্ণ অনুপস্থিত।

চিঠিতে আরও বলা হয়, ৪ ডিসেম্বরের শুনানিতে অংশগ্রহণের জন্য নিমন্ত্রণপত্র দেয়া হলেও এমন সময়ে দেয়া হয়েছে যে হোয়াইট হাউজ এই শুনানির জন্য প্রস্তুতির নেয়ার যথেষ্ট সময় পাচ্ছে না। শুধু তাই নয়, সাক্ষীদের ব্যাপারে তেমন কোনো তথ্যও হোয়াইট হাউজকে সরবরাহ করেনি কমিটি।

অবশ্য এর পরের শুনানিতে প্রেসিডেন্ট থাকছেন কিনা সে বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি হোয়াইট হাউজের পক্ষ থেকে। চিপোলোনে বলেন, পরবর্তী শুনানির এখনো তারিখ ঠিক হয়নি। তারিখ ঠিক হওয়ার পর আলাদা করে সেটির জন্য ট্রাম্পকে নিমন্ত্রণ করলে তখন সেটির জবাব দেবে হোয়াইট হাউজ।

বিজ্ঞাপন

গত সপ্তাহে হাউজ জুডিশিয়ারি কমিটির ডেমোক্রেটিক চেয়ারম্যান জেরল্ড ন্যাডলার ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বুধবারের শুনানিতে থাকার আমন্ত্রণ জানিয়ে বলেছিলেন: ট্রাম্প হয় শুনানিতে আসবেন, নয় ‘প্রক্রিয়া নিয়ে অভিযোগ করা বন্ধ করবেন’।

লিখিত বিবৃতির মাধ্যমে ন্যাডলার ট্রাম্পকে শুনানিতে থাকতে বলেছেন। তিনি বলেন, ‘মূল কথা হলো, প্রেসিডেন্টকে এবার সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তিনি অভিসংশন শুনানিতে থেকে আত্মপক্ষ সমর্থন করার সুযোগ নিতে পারেন, অথবা প্রক্রিয়াটি নিয়ে অভিযোগ করা বন্ধ করতে পারেন।’

‘আমি আশা করছি তিনি তদন্ত প্রক্রিয়ায় অংশ নেয়াটাকেই বেছে নেবেন, সেটা সরাসরিই হোক বা কাউন্সেলের মাধ্যমে, যেমনটা তার আগে অন্য প্রেসিডেন্টরা করেছেন,’ বলেন তিনি।

শুনানিতে অংশ নিলে ট্রাম্প নিজের পক্ষ থেকে সাক্ষীদের প্রশ্ন করার সুযোগ পাবেন বলেও জানিয়েছিলেন ন্যাডলার।

সাবেক মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের তদন্ত করতে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিকে চাপ দেয়ার অভিযোগ বিষয়ে প্রায় ২০ দিন ধরে চলছে ট্রাম্পের অভিসংশন শুনানি। শুনানিতে এ পর্যন্ত মোট ১২ জনের সাক্ষ্য নেয়া হয়েছে। ৪ ডিসেম্বর পরবর্তী শুনানির তারিখ।

ইতোমধ্যে ট্রাম্প কয়েকবার ইউক্রেনে সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত ম্যারি ইয়োভানোভিচসহ কয়েকজন সাক্ষীর বিরুদ্ধে এবং পুরো প্রক্রিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে আক্রমণাত্মক টুইট পোস্ট করেছেন। এসব টুইটের জবাব আলাদা আলাদা করে দেয়া হলেও এসব নিয়ে বিরক্ত খোদ মার্কিন কংগ্রেস। আর সে কারণেই ট্রাম্পকে শুনানিতে থাকার আহ্বান জানানো হয়েছিল।

Bellow Post-Green View