চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
ব্রাউজিং

স্মরণের জানালায় মাহবুবুল হক শাকিল

মানবতাবাদী উদার রাজনীতিবিদ ছিলেন মাহবুবুল হক শাকিল

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী কবি মাহবুবুল হক শাকিলের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করা হয়েছে। স্মৃতিচারণ পর্বে বক্তারা মাহবুবুল হক শাকিলকে একজন মানবতাবাদী উদার রাজনীতিবিদ হিসেবে উল্লেখ করেন। মিলাদ শেষে অনুষ্ঠিত বিশেষ মোনাজাতে মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়। শাকিলের পরম সুহৃদদের সংগঠন ‘মাহবুবুল হক শাকিল সংসদ’ এর পক্ষ থেকে আয়োজিত মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে মাহবুবুল হক শাকিল-এর সকল বন্ধু, সতীর্থ, সহযোদ্ধা, সহকর্মী, অগ্রজ-অনুজ,…

শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় মাহবুবুল হক শাকিলের মৃত্যুবার্ষিকী পালন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সহকারী ও কবি মাহবুবুল হক শাকিলের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তার নিজ জেলা ময়মনসিংহে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বাদ আসর বাঘমারায় প্রয়াত শাকিলের বাসভবনে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিলে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ছাড়াও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও শাকিলের বাবা অ্যাড. জহিরুল হক খোকা, সাধারন সম্পাদক অ্যাড. মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান, পৌর মেয়র ইকরামুল হক টিটু, এফবিসিসিআই’র সাবেক পরিচালক আমিনুল হক শামীম, ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি লিয়াকত…

শাকিল সংবাদ: একটি মন খারাপের লেখা

মরে যাওয়া মানুষ তুমি আর কতদূর যাবে? খাটিয়ার গতি কি ছুঁতে পারে জীবনের গান? খুব বেশি বিষাদ ছিল তোমার নির্ঘুম চোখে? পুড়ে যাওয়া সমস্ত শ্লোক মনে করিয়েছিল ভুল কবিতার খাতা? ভীষণ বাঙ্গময় তুমি আজ নিথর ক্রীতদাস, নিয়তির, যাও অন্ধকারে, মাটিতে, পড়ো ফেলে আসা জ্যোৎস্নার ইতিহাস। (অগস্ত্য যাত্রা, মন খারাপের গাড়ি, পৃ: ১৯) শাকিল ভাইয়ের ২য় কাব্যগ্রন্থ ‘মন খারাপের গাড়ি’ বেরিয়েছিলো ২০১৬ সালের অমর একুশে গ্রন্থমেলায়। আর বইটি আমাকে দিয়েছিলেন মার্চের ৮ তারিখ। সন্ধ্যা বেলায়। ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে। তখন শাকিল ভাইয়ের কানে ছোটখাট একটা…

আর দেখা হয়নি সেই প্রাণের সম্মিলনে

একুশে বইমেলা বাঙালির অন্যতম উৎসবের নাম। লাখো পাঠক মুখিয়ে থাকেন প্রিয় লেখকের নতুন বই, অটোগ্রাফ আর তার সরাসরি সাক্ষাৎ লাভের আশায়। ফেব্রুয়ারির এই মেলায় স্টলে ঘুরে ঘুরে নতুন বইয়ের গন্ধ নেয়া, সবশেষে বই কিনে বাড়ি যাওয়ার আনন্দটাই আলাদা। এতো গেলো পাঠকের অনুভূতির কথা; যারা এই আয়োজনকে ঘিরে পাঠকদের জন্য বসিয়ে যান অক্ষরের পর অক্ষর, পাঠককে নিজের শিল্পসত্তার সেরাটা দিতে যারা পরিশ্রম করে যান দিনের পর দিন এবং রাতের পর রাত, তাদের অনভূতিটা কেমন? তাদের অনভূতি জানতে চলুন আমরা ঘুরে আসি ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের কিছু ফেসবুক স্ট্যাটাসে। ওই…

মন খারাপের গাড়ির মালিক, আপনার প্রতি শ্রদ্ধা

প্রথমে খবরটি পাই ফেসবুকে সাংবাদিক অঞ্জন রায়ের পোস্ট, মাহবুবুল হক শাকিল, তার পরে অনেকগুলো ডট। প্রথমে ভাবছিলাম পোস্টের নীচে মজা করে কিছু লিখব কারণ মাহবুবুল হক শকিল আর অঞ্জন রায় দুজনের সাথে-ই আমার সম্পর্কটা একটু ভিন্ন ধরনের। কিন্তু একটু পরেই তার আরেক ছায়াসঙ্গী বন্ধু আনিসুর রহমান লিটু আর বেগ শাহীনের ফোনে নিশ্চিত হই চারদিক আঁধার করে আসা সেই অবিশ্বাস্য খবরটি। শাকিল ভাই নেই। শাকিল ভাই, মাহবুবুল হক শাকিল। আমাদের হলের বড় ভাই, বয়সের সীমা ছাড়িয়ে যিনি হয়ে উঠেছিলেন আমাদের বন্ধু, স্বজন। তার জীবনবোধ, ব্যবহার, লাইফ স্টাইল ছিল একটু…

শাকিল ভাইয়ের কর্মেই মানুষ তাকে স্মরণ করবে

প্রজ্ঞা, মেধা, মনন, দায়িত্বশীলতা, সৃজনশীলতা এবং সততায় সৃষ্টিশীল মানুষগণ তাদের সবটুকু আলোকচ্ছটা পৃথিবীতে ছড়িয়ে দেওয়ার আগেই হারিয়ে যান পৃথিবীর মায়া ছেড়ে। কিন্তু এ স্বল্প সময়ের তাদের জ্ঞানের আর কর্মের কারণে আশেপাশের মানুষ পেয়ে থাকে আশার আলো, পায় ভবিষ্যতের আলোকবর্তিকা, অন্যেরা হয়ে উঠেন আলোকিত।এ রকমই একজন প্রতিভাবান মানুষ ছিলেন মাহবুবুল হক শাকিল। তার জীবনাচরণে আশাহীন যুবক পেতে পারে সৃষ্টিশীল জীবনের হাতছানি। ক্ষমতার সর্বোচ্চ শিখরে থেকেও লালসাহীন জীবনযাপনের জন্য তিনি ছিলেন অনন্য। দলমত নির্বিশেষে সকল শ্রেণির পেশাজীবীদের নিকট তিনি…

বছর পেরোলেও শোক আর শ্রদ্ধায় এখনও জীবিত কবি মাহবুবুল হক শাকিল

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ও কবি মাহবুবুল হক শাকিলের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ২০১৬ সালের এই দিনে তিনি আকস্মিকভাবে মৃত্যুবরণ করেন। ১৯৬৮ সালের ২০ ডিসেম্বর টাঙ্গাইলে নানার বাড়িতে শাকিলের জন্ম। ময়মনসিংহ জিলা স্কুলের মেধাবী ছাত্র মাহবুবুল হক শাকিল ১৯৮৪ সালে এসএসসি পাশ করেন। আনন্দ মোহন কলেজে ভর্তি হবার পর যোগ দেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগে। ১৯৮৬ সালে এইচএসসি পাস করার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৯০ সালে সমাজবিজ্ঞানে স্নাতক এবং ১৯৯১ সালে স্নাতকোত্তর শেষ করেন। স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলন এবং নব্বইয়ের গণঅভ্যুত্থানের সক্রিয় অংশগ্রহণকারী…

আমার শাকিল ভাই

শাকিল ভাইকে নিয়ে কিছু লিখতে গেলে এখন কোনো শব্দই খুঁজে পাই না, কখনোবা মনে হয় শাকিল ভাইকে নিয়ে লেখার মতো কোনো শব্দই আমার অভিধানে নেই। মানুষ হিসেবেও শাকিল ভাই তেমনই, মাঝেমধ্যে মনে হয় মানুষটিকে আমি খুব বেশি চিনতে পেরেছিলাম, আবার মনে হয় আমি তাকে আদৌ বুঝতে পারিনি। শাকিল ভাই আসলে কখনো ছিলেন বহুরূপী, কখনোবা বর্ণচোরা। তবে সবকিছু ছাপিয়ে আমি যে শাকিল ভাইকে আবিষ্কার করেছিলাম তা হচ্ছে কোমল মনের শিশুসুলভ এক শাকিল ভাইকে। শাকিল ভাইয়ের সাথে আমার ব্যবধান এক প্রজন্মের, যেকোনো সম্পর্কের ক্ষেত্রে বয়স প্রায়ই অন্যতম বাঁধা হয়ে দাঁড়ায় অথচ শাকিল…

মাহবুবুল হক শাকিল: জীবন যার কবিতা, মৃত্যুও

ছাত্ররাজনীতির জনপ্রিয় মুখ মাহবুবুল হক শাকিলের বাড়ি ময়মনসিংহ। শহরের বাঘমারা এলাকায় তার বেড়ে ওঠা। জন্ম ১৯৬৮ সালের ২০ ডিসেম্বর, টাঙ্গাইলে নানার বাড়িতে । ছোটবেলা থেকেই রাজনীতির সাথে পরিচয়। শৈশবেই আইনজীবী বাবা মোঃ জহিরুল হককে সক্রিয় রাজনীতিতে দেখেছেন। সৈয়দ নজরুল ইসলামের প্রিয় শিষ্যদের একজন জহিরুল হক এখন ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি। শাকিলের একমাত্র সহোদর নাইমুল হক বাবু পেশায় সাংবাদিক। শাকিলের মা স্কুল শিক্ষক নুরুন নাহার খান সন্তানের মননশীলতা গড়ে তোলার ব্যাপারে ছিলেন যত্নশীল। তার প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ নজরদারিতে বেড়ে ওঠা…

মাহবুবুল হক শাকিল এক বিস্ময়ের নাম

কবিতা পড়তে পড়তে, লেখার সকুণ্ঠ চেষ্টা করতে করতে একজন জনপ্রিয় ছাত্রনেতা ও রাজনীতি-সংলগ্ন তরুণ হয়ে উঠলেন কবি। তিনি মাহবুবুল হক শাকিল। এভাবে কবি হয়ে ওঠা পৃথিবীতে বিরল ঘটনা নয়। কিন্তু বাংলাদেশে তা আগে দেখা যায়নি। শাকিল তাঁর পুরো সত্তাব্যাপী আমাদের জন্য বিস্ময় ধরে রেখেছিলেন। তাঁর স্বল্পকালীন রাজনৈতিক জীবন, তার চেয়েও হ্রস্ব সময়ের জন্য কবিতাযাপন, এবং চল্লিশ পেরুতে না পেরুতে আমাদের মতো গুণমুগ্ধদের শোকস্তব্ধ করে দিয়ে তাঁর আকস্মিক চলে যাওয়া--- এসবের পুরোটাই আমাদের জন্য বিপুল এক বিস্ময়। আমার অভিজ্ঞতা থেকে বলি, মাহবুবুল হক শাকিলের মতো…