চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
ব্রাউজিং

ফরিদুর রেজা সাগর এর ‘প্রিয় মানুষ’

আলী ইমাম: পুরনো কয়েকটা সন্দেশ চাই

আমীরুল যখন জানালো তারিক সুজাতের প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান জার্নিম্যান থেকে আলী ইমাম-এর একটা সুদৃশ্য মনোরম বই প্রকাশিত হয়েছে তখন প্রথমেই আমার মনে হলো, তারিক সুজাতের জার্নিম্যান থেকে চমৎকার একটা বই কবে বের হবে? আলী ইমামের বই ‘বাংলার মুখ আমি দেখিয়াছি’ এখনো চোখে দেখিনি। তবে । অনুমান করি লেখা যেমন সুন্দর হবে তেমনই বইটাও অসাধারণ হবে এর মুদ্রণ সৌকর্যে। তারপর আমীরুল বলল, তারিক সুজাত বইটা নিয়ে হাসপাতালে ছুটে গেছে। আলী ইমাম ভয়াবহ অসুস্থ। শুভ্র বিছানায় শায়িত। আপাতত চলৎশক্তিহীন। বইটা তার সামনে মেলে ধরেছে তারিক সুজাত। আলী ইমাম ভাই…

হাবীবুল্লাহ সিরাজী: প্রিয় কবি

আমীরুলকে জিগ্যেশ করলাম, আমার কোনো বই সিরাজী ভাইকে উৎসর্গ করা হয়েছে কি? আমীরুল বলল, হাঁ। আমি সম্প্রতি লেখা একটা বই হাবীবুল্লাহ সিরাজীকে উৎসর্গ করেছি। বইটা নিজ হাতে সিরাজী ভাইকে দেব-এমনই আশা ছিল। কিন্তু করোনা আমাদের স্বাভাবিক জীবনকে এলোমেলো করে দিলো। আমিও নানা অসুখে আক্রান্ত হয়ে দীর্ঘদিন গৃহবন্দি। আমি ঘর থেকে বের হলে আমার মা রাবেয়া খাতুন খুব দুশ্চিন্তায় পড়ে যান। তাই বাংলা একাডেমি যাব যাব করেও আমার যাওয়া হয়ে ওঠেনি। নিপাট ভদ্রলোক হাবীবুল্লাহ সিরাজীকে উৎসর্গ করা বইটা নিজ হাতে দেয়া হয়নি। হাবীবুল্লাহ সিরাজী একজন খ্যাতিমান কবি।…

শামসুজ্জামান খান: ইতিহাসের প্রস্থান

সারাক্ষণ তিনি কাজে ব্যস্ত থাকতেন। কিন্তু যখনই তাকে ডাকা হতো তিনি ‘না’ করতেন না। যত ব্যস্ততাই থাকুক তিনি চ্যানেল আইতে আসতেন। চ্যানেল আই পরিবারের তিনি ছিলেন একজন গুরুত্বপূর্ণ সম্মানিত সদস্য। এমনও দিন গেছে তিনি সরাসরি সম্প্রচারিত অনুষ্ঠানে পরে যুক্ত হয়ে অংশ নিয়েছেন। অনুষ্ঠান শেষে হয়তো মধ্যাহ্নভোজ সেরে ছুটে গেছেন আরেকটি সভা- সেমিনারে। যে কোনো কাজ তিনি করতেন গভীর নিষ্ঠা ও মননশীলতা দিয়ে। সমগ্র জীবন তিনি ব্যয় করেছেন বাংলা একাডেমিতে। আমাদের শিল্প সাহিত্য সংস্কৃতিতে তার অবদান ইতিহাস হয়ে আছে। বাংলা সন ও পহেলা বৈশাখ নিয়ে তার রচিত…

ছোটকাকুর সঙ্গে একটা জীবন

আমাদের বাড়িতে র‌্যাক ভর্তি ছিল বই আর বই। আমার মা লেখক রাবেয়া খাতুন। বাবা ছিলেন চলচ্চিত্র নির্মাতা ও সাংবাদিক ফজলুল হক। সে যুগের অধিকাংশ ভালো গল্প উপন্যাস আমার মা সংগ্রহ করতেন। মনে পড়ে, ১৯৫২ সাল থেকে কলকাতা থেকে প্রকাশিত বিখ্যাত দেশ পত্রিকা ছিল আমাদের বাসায়। পরে ললনা, সচিত্র সন্ধানী, উল্টোরথ, জলসা কত পত্র পত্রিকাই না ছিল আমাদের বাসায়। তখন রিডার্স ডাইজেস্ট নামে একটা পত্রিকা নিয়মিত পাওয়া যেত। ছোট ছোট মজার মজার ফিচার থাকত পত্রিকাটিতে। LIFE নামে বড় সাইজের একটা পত্রিকা পাওয়া যেত নিয়মিত। বড় বড় ছবি ছাপা হতো। খবর ছাপা হতো LIFE– এ।…

আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ: আলোর দিশারী

তার অনেক পরিচয়। নাম শোনার সঙ্গে সঙ্গে একটা পরিচিত ছবি আমাদের চোখের সামনে ভেসে ওঠে। তাকে আমরা সবাই স্যার বলি। তিনি সকলের শিক্ষক। তিনি শিক্ষকদের শিক্ষক। তিনি আমাদের পরম প্রিয় আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ। তিনি লেখক-প্রবন্ধিক। তিনি সাহিত্য আন্দোলনের পুরোধা। তিনি টেলিভিশনের বিখ্যাত অনুষ্ঠান সপ্তবর্ণর উপস্থাপক। তিনি বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা। তিনি আলোচিত মানুষ কারিগর। দেশব্যাপী বইপড়া কর্মসূচির স্বপ্নদ্রষ্টা। আমাদের রুচি নির্মাণের পথ প্রদর্শক। বহু পরিচয় তার। সব পরিচয় ছাপিয়ে একটি পরিচয় প্রধান হয়ে ওঠে। তিনি শিক্ষক। শুধুমাত্র…

ফকির আলমগীর: শোকগাঁথা

১৯৭২ সাল। সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশ। তখন সঙ্গীতের এক বিশেষ ধারা পপ সঙ্গীত তুমুল জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। একদল নবীন শিল্পী তখন পপগান গাইছে। ওদের গান তখন মানুষের মুখে মুখে। প্রচণ্ড জনপ্রিয়। এই নতুন ধারার গান, নতুন জাগরণ তুলল আমাদের সঙ্গীত জগতে। স্কুল কলেজ ও হলের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, মঞ্চ, বেতার ও টেলিভিশনে পপ শিল্পীদের উপস্থিতি নিয়মিত। সেই সময় আমি বাংলাদেশ টেলিভিশনে ছোটদের প্রচুর অনুষ্ঠান করে থাকি। প্রযোজক ছিলেন বিখ্যাত কাজী কাইয়ুম। অসম্ভব মেধাবী প্রযোজক। ছোটদের জন্য বহু অনুষ্ঠান তিনি প্রযোজনা করেছেন। সেইসব অনুষ্ঠান এখন ইতিহাস হয়ে আছে।…

কাজী আনোয়ার হোসেন: জন্মদিনের শুভেচ্ছা

কবে থেকে তাকে চিনি তা আজ আর মনে নেই। সেই ছোটবেলায় আমার ভেতরে যিনি বই পড়ার অভ্যাস তৈরি করে দিয়েছিলেন, তিনি কাজী আনোয়ার হোসেন। তিনি এক ভিন্নধারার লেখক। প্রত্যেক মাসেই নিয়মিতভাবে পাঠকদের জন্য উপহার দিয়েছেন মাসুদ রানা। কিশোরদের গোয়েন্দা কাহিনি কুয়াশা সিরিজের বই। নানারকম রহস্য-রোমাঞ্চকর গল্প-উপন্যাস। তিনি প্রতিষ্ঠা করেছেন বিখ্যাত সেবা প্রকাশনী। বই প্রকাশের পাশাপাশি প্রতিমাসে নিয়মিত প্রকাশিত হয় রহস্য পত্রিকা। একদা প্রকাশিত হতো ছোটদের জন্য কিশোর পত্রিকা। বইয়ের মাধ্যমেই কাজী আনোয়ার হোসেনের সঙ্গে আমার পরিচয়। কারণ কোনো না কোনো বই…

কবরী আপা

শিশুকিশোর সংগঠন কচি কাঁচার মেলা তখন দেশ জুড়ে সাংগঠনিক কর্মতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। আমি কেন্দ্রীয় কচি কাঁচার মেলার আহ্বায়ক। মেলা তখন প্রচুর অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে। সাহিত্য সভা, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী, রবীন্দ্র-নজরুল জয়ন্তী, পহেলা বৈশাখ ইত্যাদি নানা অনুষ্ঠান। সকল অনুষ্ঠানে আমি উপস্থিত থাকতে পারতাম না। আমি তখন নানা কাজে জীবন জীবিকার জন্য খুব ব্যস্ত থাকি। টেলিভিশনের অনুষ্ঠান। পত্রিকায় লেখালেখি। খাবার দাবার মাত্র শুরু হয়েছে। আমাকে ছুটে বেড়াতে হয়। তারপর সংসারের অনেক দায়িত্ব আমার ওপর। তাই দাদাভাই কখনও আমার উপর মনক্ষুণ্ন হতেন না। রাগ…

শেখ হাসিনা: একজন চলচ্চিত্র অনুরাগী

আমাদের দেশে চলচ্চিত্র নির্মাণের ভিত্তিভূমি হচ্ছে বিএফডিসি। অর্থাৎ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন। এই বিএফডিসি প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখেছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ১৯৫৪ এর যুক্তফ্রন্ট নির্বাচনের মন্ত্রিসভার সর্ব কনিষ্ঠ মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন। সেই তরুণ শিল্পমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু এফডিসি নির্মাণের প্রস্তাব করেন। এবং এফডিসি নির্মাণে ব্যাপক ভূমিকা রাখেন। চলচ্চিত্র একটি শক্তিশালী গণমাধ্যম এটা তিনি তরুণ বয়সেই বুঝতে পেরেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর গৌরবময় ও কীর্তিময় জীবনের একটা বড় সময় কাটিয়েছেন কারাবন্দী অবস্থায়। জেলখানার…