চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Cable

আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এবং নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সেমিনার

Nagod
Bkash July

আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস-২০২২ উদযাপন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এবং নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়’র যৌথ ব্যবস্থাপনায় ঢাকা সেনানিবাসস্থ সেনামালঞ্চে ‘বিশ্ব শান্তিতে বাংলাদেশের ভূমিকা’ শীর্ষক একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Reneta June

বুধবারের সেমিনারে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, সংসদ সদস্য প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) থেকে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে: সেমিনারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ ‘বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর ভূমিকা’ জানিয়ে বক্তব্য প্রদান করেন। এছাড়া রাষ্ট্রদূত শহীদুল হক, প্রফেসরিয়াল ফেলো, এস আই পি জি, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রাক্তন সিনিয়র সচিবও পররাষ্ট্র সচিব, বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের কূটনৈতিক উদ্যোগ সম্পর্কে বক্তব্য প্রদান করেন।

সেমিনারে সেনাবাহিনী প্রধান তার বক্তব্যে বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশী শান্তিরক্ষীদের অসামান্য অবদান উল্লেখপূর্বক সামগ্রিকভাবে শান্তিরক্ষীদের সার্বিক অর্জনকে তুলে ধরেন। পাশাপাশি এই অর্জনকে সমুন্নত রেখে বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশী শান্তিরক্ষীদের আরো সক্রিয় ভূমিকা পালনে করণীয় সম্পর্কে আলোকপাত করেন। সেমিনারের অপর বক্তা, বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বর্তমানে বাংলাদেশের কুটনৈতিক উদ্যোগ এবং বাংলাদেশের বর্তমান অবস্থানের সার্বিক বিষয়সমূহ উল্লেখপূর্বক বক্তব্য প্রদান করেন। উভয় বক্তাগণ, বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশী শান্তিরক্ষীদের এবং বাংলাদেশের কুটনৈতিক উদ্যোগের অন্তরায়সমূহ উল্লেখপূর্বক ভবিষ্যত কর্মপরিকল্পনারও প্রস্তাব করেন।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপনপূর্বক জাতির পিতার পররাষ্ট্রনীতির উপর আলোকপাত করেন। তিনি বলেন, মানবজাতির প্রতি জাতির পিতার দর্শনই আমাদের সংবিধানের মূল ভিত্তি। এই ভিত্তিকে উজ্জীবিত রাখতে আমরা সকলে বদ্ধপরিকর থাকবো। তিনি আশা ব্যক্ত করেন, জাতির পিতার এই দর্শন এবং বাংলাদেশের সংবিধানকে সমুন্নত রেখে বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশী শান্তিরক্ষী ও সকল পর্যায়ের অংশীদারগণ সমন্বিত প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে।

অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী বক্তাগণ, আগত অতিথি ও বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের প্রশ্ন ও উত্তর পর্ব আজকের সেমিনারকে আরো প্রাণবন্ত করে তোলে। এ সময় সকলের মাঝে আগ্রহ পরিলক্ষিত হয়। প্রফেসর আতিকুল ইসলাম, ভাইস চ্যান্সেলর, নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি তাঁর বক্তব্যে বাংলাদেশ অভ্যন্তরে ও দেশের বাহিরে শান্তি রক্ষায় চেয়ে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে সে বিষয়ে আলোকপাত করেন। এ বছর আন্তর্জাতিক শান্তি দিবসের মূল প্রতিপাদ্য হল ‘বর্ণবাদের অবসান, শান্তি বিনির্মাণ’।এই ধারণাকে সামনে রেখে নতুন প্রজন্মের কাছে বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের সক্রিয় এবং গৌরবময় ভূমিকা তুলে ধরার পাশাপাশি বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় ভবিষ্যত চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বাংলাদেশের সকল স্তরের অংশীদারদের জন্য একটি সার্বজনীন সহায়ক ক্ষেত্র প্রস্তুত করাই হবে এই সেমিনারের মূল উদ্দেশ্য।

এই সেমিনারে আমন্ত্রিত সংসদ সদস্যগণ, বাংলাদেশে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের সামরিক উপদেষ্টা ও ডিফেন্স এ্যাটাশেগণ, বাংলাদেশের স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলরগণ, সশস্ত্র বাহিনী, বাংলাদেশ পুলিশ ও বিভিন্ন মন্ত্রণালয় হতে আমন্ত্রিত ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, প্রাক্তণ সেনাবাহিনী প্রধানগণ, বাংলাদেশে অবস্থিত বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা, জাতিসংঘ ও জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি, বিশিষ্ট শিক্ষা ব্যক্তিত্ব, গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব এবং বাংলাদেশের স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন।

BSH
Bellow Post-Green View