সরকারের উচিত ছিল অনেক আগেই সংলাপের আয়োজন করা: নজরুল ইসলাম খান

বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, সরকারের কাছে রাষ্ট্রের জনগণের নিরাপত্তা গুরুত্বপূর্ণ নয়। সরকারের উচিত ছিল অনেক আগেই সংলাপের আয়োজন করা।

মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) বিদ্যমান সংকটময় পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক দল, শিক্ষাবিদ, সাংবাদিক ও বিভিন্ন পেশাজীবী প্রতিনিধিদের সঙ্গে ‘জাতীয় সংলাপ’ শিরোনামে এ অনুষ্ঠানের এসব বলেন তিনি।

বিএনপির এই স্থায়ী কমিটির সদস্য বলেন, ২০১১ সালে সংবিধান সংশোধনীর পর থেকে দেশের রাজনীতিতে শান্তি নাই। এই যে অস্থিরতা তৈরি করা হলো, তার উদ্দেশ্য জোর করে ক্ষমতায় টিকে থাকা।

নির্বাচনে অশগ্রহনের বিষয়ে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের অধীনে কেন নির্বাচন যাবো আমরা? সরকার জবরদস্তি করছে। জনগণের অধিকারকে যারা তছনছ করছে, তাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, এই সরকার বলছে, গণতন্ত্রের চেয়েও উন্নয়ন বেশি গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু আগে গণতন্ত্র তারপর উন্নয়ন। এসব উন্নয়ন দুর্নীতির টাকায় বানানো। এ যেন গোরস্থানে অলীক সজ্জা। এমন উন্নয়ন চাই না আমরা।

সংলাপে অংশ নিয়ে নজরুল ইসলাম বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে বিদেশিদের বোঝানো হচ্ছে, সাংবিধানিক শূন্যতা তৈরি হবে, তাই ৭ জানুয়ারি নির্বাচনের বাধ্যবাধকতা আছে। এভাবে বিদেশিদের বোঝানো হচ্ছে। এখনও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ২৯ তারিখের আগে ২৭ জানুয়ারিও যদি রাষ্ট্রপতির মাধ্যমে সংসদ ভেঙে দিয়ে নির্বাচনের আহ্বান করেন, তারপরও ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন সম্ভব তা সংবিধানেই আছে। তাই সময় নেই এ কথার কোনো ভিত্তি নেই।

বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, তত্ত্বাবধায়ক বা নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে নিয়ে সংলাপ হতে পারে। সংলাপ হবে না, হওয়ার সময় নেই এসব কথা ঠিক নয়।

অগুরুত্বপূর্ণজনগণের নিরাপত্তানজরুল ইসলাম খানবিএনপিসরকারস্থায়ী কমিটির সদস্য